গরমে চলছে ওয়ালটনের স্মার্ট এসি

Send
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত : ১৪:০২, মার্চ ২৯, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ১৪:০৩, মার্চ ২৯, ২০১৮

ওয়ালটনগরম শুরু হয়েছে। গরমে প্রশান্তি পেতে চাই এসি বা এয়ারকন্ডিশনার। গ্রাহকদের কথা চিন্তা করে ওয়ালটন নিয়ে এসেছে বিদ্যুত সাশ্রয়ী ইনভার্টার প্রযুক্তির স্মার্ট এসি।

এসির দাম, মান এবং বিদ্যুত খরচ নিয়ে গ্রাহকের ভাবনার অন্ত নেই। এসবের সহজ সমাধান নিয়ে এসেছে দেশীয় ব্র্যান্ড ওয়ালটন। বিদ্যুত খরচ ব্যাপক কমাতে এনেছে ইনভার্টার প্রযুক্তির স্মার্ট এসি। ফলে বাজারে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে ওয়ালটনের এসব এসি।

উল্লেখ্য, ১২০০০ বিটিইউকে (ব্রিটিশ থার্মাল ইউনিট)  বলা হয় এক টন। আমদানি করা এসিতে সঠিক বিটিইউ থাকে না। যা সাধারন ক্রেতার পক্ষে ধরা সম্ভব নয়। তবে ওয়ালটন দেশে তৈরি করছে বলে সঠিক বিটিইউ নিশ্চিত করছে।

আয়োনাইজার এসিওয়ালটন এসির চিফ অপারেটিং অফিসার প্রকৌশলী ইসহাক রনি জানান, স্থানীয় বাজারে যেকোনো ব্র্যান্ডের চেয়ে উচ্চ গুণগতমানের এসি উৎপাদন করছে ওয়ালটন। দীর্ঘস্থায়ীত্বের জন্য ব্যবহার করা হয়েছে গোল্ডেন ফিন। সম্প্রতি ওয়ালটন এসিতে সংযোজন করা হয়েছে আয়নাইজার প্রযুক্তি। এটি ব্যবহারে রুমের বাতাস থাকে ধূলা-ময়লা ও ব্যাকটেরিয়ামুক্ত। সাধারণ এসির তুলনায় ওয়ালটনের ইনভার্টার এসি ৬০ শতাংশ পর্যন্ত বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী। ওয়ালটন এসিতে আরো ব্যবহার করা হচ্ছে গোল্ডেন কালার ফিন প্রযুক্তি। যা এসির স্থায়ীত্ব বাড়ায়।

ইনভার্টার এসিজানা গেছে, নিয়মিত গবেষণার মাধ্যমে ওয়ালটনের প্রকৌশলীরা বাজারে নিয়ে এসেছে মুঠোফোনে নিয়ন্ত্রণযোগ্য আইওটি বেজড স্মার্ট এসি। যা কিনা এসিতে প্রতিদিন বা মাসিক বিল আসছে কত? ভোল্টেজ লো না হাই? কম্প্রেসার কি ওভারলোডে চলছে? এসব প্রশ্নের উত্তর দেবে। দেশের বাজারে ওয়ালটনই প্রথমবারের মতো স্মার্ট এসি নিয়ে এসেছে।

ওয়ালটনের নির্বাহী পরিচালক ও পরিবেশক সেলস বিভাগের প্রধান মো. এমদাদুল হক সরকার বলেন, গত বছরের মার্চের তুলনায় চলতি বছরের মার্চ মাসে বেশি এসি বিক্রি হয়েছে। যা কিনা চলতি মাসে এসি বিক্রির লক্ষ্যমাত্রাকেও ছাড়িয়ে গেছে।

স্মার্ট এসিতার মতে, বিক্রি বৃদ্ধিতে বিশেষ অবদান রাখছে নতুন মডেলের পরিবেশ-বান্ধব আয়নাইজার ও ব্যাপক বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী ইনভার্টার প্রযুক্তির এসি। স্থানীয় বাজারে এসব এসি ব্যাপক গ্রাহকপ্রিয়তা পাচ্ছে।

/এসএসএ/

লাইভ

টপ