সামাজিক নিরাপত্তাবেষ্টনীর ভাতা প্রদানে জিটুপি পেমেন্ট সিস্টেম

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ০৫:০১, মে ১৮, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ০৫:০৩, মে ১৮, ২০১৮

অর্থ মন্ত্রণালয়সামাজিক নিরাপত্তাবেষ্টনী কর্মসূচির ভাতা প্রদান প্রক্রিয়া দ্রুত ও সহজতর করতে জিটুপি পেমেন্ট সিস্টেম চালু করেছে সরকার। ডিজিটাল এই পদ্ধতিতে এখন থেকে সরকারি কোষাগার থেকে সুবিধাভোগীদের ভাতা তাদের ব্যাংক অথবা মোবাইল ব্যাংক অথবা পোস্টাল অ্যাকাউন্টে সরাসরি পাঠানো হবে।

নতুন এ ব্যবস্থায় সুবিধাভোগীর নিজের পছন্দের ব্যাংক অথবা মোবাইল বা পোস্টাল অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে ভাতার অর্থ জমা হবে এবং তিনি এসএমএস-এর মাধ্যমে অর্থ জমার বিষয় জানতে পারবেন।

নতুন এ পদ্ধতিতে ৭টি উপজেলায়–নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁ, মুন্সীগঞ্জ জেলার শ্রীনগর, ঢাকা জেলার সাভার, গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গিপাড়া, গাজীপুর জেলার কালিগঞ্জ ও কালিয়াকৈর এবং কিশোরগঞ্জ জেলার ভৈরবেএর মাতৃত্বকালীন ভাতা কর্মসূচির সুবিধাভোগীদের এ বছরের জানুয়ারি থেকে মার্চ এই তিন মাসের ভাতা প্রদানের মাধ্যমে পাইলটভিত্তিতে পরীক্ষামূলকভাবে এ পদ্ধতি চালু হয়।

অর্থ সচিব মুসলিম চৌধুরীর সভাপতিত্বে বৃহস্পতিবার (১৭ মে) সচিবালয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে গভর্নমেন্ট টু পারসন (জিটুপি) পেমেন্ট ব্যবস্থায় ভাতা পরিশোধের উদ্বোধন করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।  

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি ও সচিব নাসিমা বেগম উপস্থিত ছিলেন।  

বর্তমানে সুবিধাভোগীদের ভাতা পাওয়ার জন্য একটি নির্দিষ্ট ব্যাংকের শাখায় উপস্থিত হয়ে একটি নির্ধারিত তারিখে ভাতা উত্তোলন করতে হয়। অনেক সময় যা তাদের জন্য কষ্টসাধ্য, ব্যয়বহুল, সময়ের অপচয় এবং অন্যান্য বিড়ম্বনার কারণ হয়ে দাঁড়ায়।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, অর্থ বিভাগের সামাজিক সুরক্ষা জন্য জনসাধারণ আর্থিক ব্যবস্থাপনা শক্তিশালীকরণ (এসপিএফএমএসপি) প্রকল্প এই নতুন ব্যবস্থা প্রবর্তনে সহায়তা করেছে। যুক্তরাজ্যের ডিএফআইডি এবং অস্ট্রেলিয়ার ডিএফএটি প্রকল্পটি বাস্তবায়নে কারিগরি সহযোগিতা দিয়েছে।

ভাতাভোগীদের জন্য মহিলাবিষয়ক অধিদফতরে এমআইএস প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে এবং এনআইডি ভেরিফিকেশনসহ দ্বৈততা পরিহারের ব্যবস্থা সন্নিবেশ করা হয়েছে।

এসময় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অর্থমন্ত্রী কালিয়াকৈর, টুঙ্গিপাড়া, কালিগঞ্জ ও সাভারের উপজেলা নির্বাহী অফিসারদের পাশাপাশি কয়েকজন সুবিধাভোগীর সঙ্গে কথা বলেন।

/এসআই/এএম/

লাইভ

টপ