খেলাপি কমাতে প্রত্যেক ব্যাংকে বিশেষ নিরীক্ষা হবে: অর্থমন্ত্রী

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৯:৫৫, ফেব্রুয়ারি ০৬, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:৪৩, ফেব্রুয়ারি ০৬, ২০১৯

কেআইবি অডিটোরিয়ামে বক্তব্য রাখেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালখেলাপি ঋণ কমাতে প্রতিটি ব্যাংকে স্পেশাল অডিট (বিশেষ নিরীক্ষা) করা হবে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। তিনি বলেন, ‘আপনাদের (ব্যাংক কর্মকর্তা) বিপদে ফেলতে নয়, নির্ভার করতেই এ নিরীক্ষা হবে।’ বুধবার (৬ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশের (কেআইবি) অডিটোরিয়ামে রূপালী ব্যাংকের ব্যবসায়িক সম্মেলন ২০১৯-এ তিনি এসব কথা বলেন।

আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, ‘যারা ঋণ নিয়েছে, তারা কারা? তারা যে ঋণপত্র খুলে মূলধনী যন্ত্র এনেছে, তা কোথায় বসিয়েছে আমরা তা দেখবো। তিনটি নিরীক্ষা প্রতিষ্ঠানকে দিয়ে আমরা কাজ শুরু করবো। আমরা এমন একটা অবস্থানে নিয়ে আসতে চাই, যেখানে শুধু সততার বিজয় হবে, সবাই সত্য জানবে। বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিবের সঙ্গে আলোচনা করে এটা করা হবে।’
ব্যাংক কর্মকর্তাদের উদ্দেশে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘খেলাপি ঋণ অবশ্যই একটা অপরাধ। শুধু আপনাদের জন্য না, পুরো দেশের জন্য। ঋণ নিয়ে তা পুরোপুরি ব্যবহার করতে না পারলে তো ব্যর্থতা। তবে দেখতে হবে কারা ব্যবসায়ী আর কারা অসাধু ব্যবসায়ী। অসাধু ব্যবসায়ীদের কোনও ছাড় নেই। যারা সহায়তা (ব্যাংকার) করেছে, তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’
মুস্তফা কামাল আরও বলেন, ‘আমি যেসব বিষয় ধারণা করতে পারছি, প্রকৃত সত্য চিত্র পেলে আমাদের জন্য ভালো হবে। বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর মহোদয়কে আমি ভালোভাবে চিনি। তিনি আতঙ্ক তৈরির জন্য কোনও কাজ করেননি। আমি এখানে ব্যবসা-বাণিজ্য বন্ধ করার জন্য আসিনি। ১৯৭৩ সাল থেকে আমি ব্যবসা করি। গ্রাহককে জেনে শুনে ঋণ দিতে হবে।’
অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের দেশে দুই ধরনের ব্যবসায়ী রয়েছেন। প্রথম প্রকার হলো, যারা আসলেই ব্যবসা করতে চান কিন্তু মাঝে মাঝে হোঁচট খান, হোঁচট খেয়ে খেলাপিতে পরিণত হন, তাদের প্রতি সহনশীল হতে হবে। কিন্তু অন্য আরেক শ্রেণির ব্যবসায়ী আছেন, যারা ফেরত না দেওয়ার জন্য ঋণ নেন।’ তাদের প্রতি তিনবার সাবধান বাণী উচ্চারণ করে মন্ত্রী বলেন, ‘তাদের কোনও ছাড় দেওয়া হবে না। ঋণ আদায়ে যে ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া দরকার সেটাই করা হবে।
সম্মেলনে বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের অতিরিক্ত সচিব ফজলুল হক। ব্যাংকটির চেয়ারম্যান মনজুর হোসেনের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য দেন ব্যাংকটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক আতাউর রহমান প্রধান।

/জিএম/আইএ/এমওএফ/

লাইভ

টপ