তিন বন্দরে প্রতিদিন সকাল ৭টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত ব্যাংক খোলা থাকবে

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২০:৩৫, ফেব্রুয়ারি ০৬, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:৪২, ফেব্রুয়ারি ০৬, ২০১৯

 

নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়চট্টগ্রাম, মোংলা ও বেনাপোল স্থলবন্দরে প্রতিদিন সকাল ৭টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত ব্যাংক খোলা রাখা হবে। বন্দরগুলোতে কন্টেইনার স্ক্যানিংয়ের জন্য কাস্টমস কর্তৃপক্ষ দ্রুত পর্যাপ্ত স্ক্যানার মেশিনও স্থাপন করবে। বুধবার (৬ ফেব্রুয়ারি) নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ে সভাকক্ষে এক বৈঠকে এসব সিদ্ধান্ত জানানো হয়।

চট্টগ্রাম, মোংলা ও স্থলবন্দরগুলোর কার্যক্রমের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের অনিষ্পন্ন বিষয়গুলো নিষ্পত্তির বিষয়ে বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়। নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন।

বৈঠক থেকে জানানো হয়েছে, দ্রুত পণ্য খালাস ও ব্যবসায়িক কার্যক্রম সহজ করতে সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী চট্টগ্রাম, মোংলা ও বেনাপোল স্থলবন্দরে ২৪ ঘণ্টা সার্ভিস খোলা রয়েছে। ব্যবসায়ীসহ দেশের জনগণ এর সুফল ভোগ করছেন। বন্দর ব্যবহারকারীদের কাঙ্ক্ষিত সেবা আরও সহজ ও বাস্তবমুখী করতে নতুন করে আজ এসব সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

বৈঠকে অন্যান্যের মধ্যে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব আবদুস সামাদ, চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার এডমিরাল জুলফিকার আজিজ, স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান তপন কুমার চক্রবর্তী, মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান কমডোর এ কে এম ফারুক হাসান, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় এবং বন্দর ব্যবহারকারী প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকে ফুল লোড কন্টেইনার (এফসিএল) চট্টগ্রাম বন্দরের বাইরে অফডকে (বেসরকারি কন্টেইনার ডিপো) ডেলিভারি দেওয়া, চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃক কাস্টমসের কাছে হস্তান্তর করা অকশনযোগ্য কন্টেইনার ও গাড়ি দ্রুত অকশন করা, চট্টগ্রাম বন্দরে গ্রিন চ্যানেল চালু, কন্টেইনারের ফিজিক্যালে ভেরিফিকেশন কমানো, বক্স ডেলিভারির অনুমতি দেওয়া, মোংলা বন্দর কর্তৃক কাস্টমসের কাছে হস্তান্তর করা অকশনযোগ্য মালামাল ও গাড়ি দ্রুত অকশন, স্থলবন্দরের বিভিন্ন পণ্য নিলাম, স্থলবন্দরের অনলাইন কার্যক্রম চালুসহ বিভিন্ন বিষয়াদি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়।

 

/এসএনএস/এসআই/এনআই/টিএন/

লাইভ

টপ