কানাডা ও বাংলাদেশের ব্যবসায়ীদের ফোরাম গঠনের তাগিদ বাণিজ্যমন্ত্রীর

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৮:৫৭, এপ্রিল ১৫, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:০৭, এপ্রিল ১৫, ২০১৯

 

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশির সঙ্গে তার কার্যালয়ে সাক্ষাৎ করেন কানাডার রাষ্ট্রদূত বেনোয়েট প্রিফনটেইন। (ছবি: পিআইডি)

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বলেছেন, বাংলাদেশে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ আরও বাড়াতে আগ্রহী কানাডা। এজন্য উভয় দেশের ব্যবসায়ীদের এগিয়ে আসতে হবে, ব্যবসা ও বিনিয়োগের ক্ষেত্রে সমস্যা চিহ্নিত করে সরকারের কাছে সুপারিশ করতে হবে। এজন্য উভয় দেশের ব্যবসায়ীদের অভিন্ন একটি ফোরাম গঠন করতে হবে। 

সোমবার (১৫ এপ্রিল) সচিবালয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অফিস কক্ষে কানাডার রাষ্ট্রদূত বেনোয়েট প্রিফনটেইন’র সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে এ সব কথা বলেন বাণিজ্যমন্ত্রী।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাণিজ্যমন্ত্রী বলেছেন, বাংলাদেশ ও কানাডা-উভয় দেশের ব্যবসায়ীদের যোগাযোগ বাড়াতে একটি ফোরাম গঠন করা প্রয়োজন। এতে উভয় দেশের ব্যবসায়ীদের মধ্যে আলোচনার প্ল্যাটফর্ম তৈরি হবে যা ব্যবসায়ীদের তৎপরতা আরও বাড়াবে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে বর্তমানে ব্যাপক বিনিয়োগের সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। ব্যবসায়ীদের সুযোগ-সুবিধা বাড়ানো হয়েছে। কানাডার ব্যবসায়ীরা বাংলাদেশে বিনিয়োগ করলে বেশি লাভবান হবেন। বাংলাদেশ সরকার বিনিয়োগকারীদের বিশেষ সুযোগ-সুবিধা দিচ্ছে। কানাডায় বাংলাদেশের পণ্যের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। কানাডায় বাংলাদেশের রফতানিও বাড়ছে। গত অর্থ বছরে বাংলাদেশ কানাডায় ১১১৮.৭১ মিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যের পণ্য রফতানি করেছে, একই সময়ে পণ্য আমদানি করেছে ৪৯৮.১৬ মিলিয়ন মার্কিন ডলার মূল্যের পণ্য। আগামী দিনগুলোতে বাংলাদেশে কানাডার বিনিয়োগ ও বাণিজ্য আরও বাড়বে বলে আশাবাদী তিনি ।

এসময় কানাডার রাষ্ট্রদূত সাংবাদিকদের বলেন, বাংলাদেশের অনেক উন্নয়ন হয়েছে। তবে বাইরে সে রকম প্রচারণা নেই। কানাডা বাংলাদেশের ঘনিষ্ঠ বন্ধু রাষ্ট্র, বাংলাদেশের উন্নয়নে কানাডা খুশি। তবে বাংলাদেশে অনেক প্রতিকূল পরিবেশ রয়েছে। বিপুল সংখ্যক রোহিঙ্গাকে বাংলাদেশ আশ্রয় দিয়েছে। এসব রোহিঙ্গাকে নিজ দেশে ফিরিয়ে নেওয়ার বিষয়ে কানাডা প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখবে এবং এ ইস্যুতে কানাডা বাংলাদেশের পাশে থাকবে। বাণিজ্যের পাশাপাশি কানাডা শিক্ষা খাততে বেশি গুরুত্ব দিয়ে থাকে। শিক্ষা ক্ষেত্রে কানাডা বাংলাদেশকে সহযোগিতা দিয়ে যাবে। কানাডায় বাংলাদেশি পণ্যের প্রচুর চাহিদা রয়েছে। এ বাণিজ্য আরও বাড়ানো সম্ভব।

তিনি বলেন, কানাডায় নিযুক্ত বাংলাদেশের কমার্শিয়াল কাউন্সিলর কানাডার ব্যবসায়ী ও বিনিয়োগকারীদের সঙ্গে বসে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করলে পরিস্থিতির উন্নতি হবে। বাংলাদেশে উন্নয়ন ও বিনিয়োগের সুযোগ বাড়াতে আরও প্রচারণা চালানোর ব্যাপারে মত প্রকাশ করেন তিনি।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, এর আগে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি ঢাকায় নিযুক্ত স্লোভেনিয়ার রাষ্ট্রদূত জোজেফ ড্রোফেনিকের সঙ্গেও বৈঠক করেন। এ সময় উভয় দেশের বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বাড়াতে প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণের ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন তারা।

উভয় বৈঠকে বাণিজ্য সচিব মো. মফিজুল ইসলাম এবং বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব তপন কান্তি ঘোষ উপস্থিত ছিলেন।

 

/এসআই/টিএন/

লাইভ

টপ