‘আমাদের অনুসন্ধানী ও জরিপ জাহাজ গভীর সমুদ্রে যাওয়ার সামর্থ্য নেই’

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৯:২৯, এপ্রিল ২৪, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:৩৫, এপ্রিল ২৪, ২০১৯

‘সাসটেইন্যাবল ব্লু ইকনোমি ফর দ্য ডেভেলপমেন্ট অব বাংলাদেশ’ শীর্ষক সম্মেলন (ছবি: পিআইডি)বিজ্ঞানী ও গবেষকদের গবেষণা অব্যাহত রাখার পাশাপাশি শিল্পমালিকদের সমুদ্রসম্পদ আহরণে ভূমিকা রাখতে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী আশরাফ আলী খান খসরু। তিনি বলেন, ‘আমরা গভীর সমুদ্রে যাওয়ার এবং সম্পদ-আহরণের লক্ষে উন্নতমানের জাহাজ আনার জন্য বারবার চেষ্টা করলেও যথাযথ সাড়া পাওয়া যাচ্ছে না। সমুদ্রে জড়সম্পদের পাশাপাশি প্রচুর জীবন্তসম্পদ থাকলেও আমাদের অনুসন্ধানী ও জরিপ জাহাজের গভীর সমুদ্রে যাওয়ার সামর্থ্য নেই।’

‘সাসটেইন্যাবল ব্লু ইকনোমি ফর দ্য ডেভেলপমেন্ট অব বাংলাদেশ’ শীর্ষক এক আন্তর্জাতিক সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

বুধবার (২৪ এপ্রিল) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনের সিনেট হলে এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমুদ্র বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. কাওসার আহমেদ এতে সভাপতিত্ব করেন।

মৎস্য প্রতিমন্ত্রী ব্লু-ইকোনমি অর্থাৎ সমুদ্রসম্পদ উত্তোলনের ক্ষেত্রে আমাদের সীমাবদ্ধতার কথা উল্লেখ করে বলেন, ‘আমাদের প্রধানমন্ত্রী কোনও কাজেই অর্থের অভাববোধ করেন না। কিন্তু, আমাদের বাস্তবমুখী উদ্যোগ ও পরিকল্পনার অভাব রয়েছে।’ তাই এমন একটি আন্তর্জাতিক সম্মেলনে সমুদ্রসম্পদের ওপর প্রাপ্ত মতামত ও সুপারিশগুলো সরকারের যথাযথ ফোরামে পেশ করার মাধ্যমে সরকারকে সহযোগিতার আহ্বা জানান তিনি।

সম্মেলনে বাংলাদেশের সমুদ্রসীমার মধ্যে মূল্যবান জীবিত ও জড়সম্পদের গবেষণা এবং উত্তোলনের পদক্ষেপ গ্রহণের ওপর গুরুত্বারোপ করেছেন সংশ্লিষ্টরা। তারা সমুদ্রের গ্যাস ও বালুসম্পদের পাশাপাশি মৎস্য-ঝিনুক-শামুক, শৈবালসহ যাবতীয় সম্পদ-আহরণে উদ্যোগী হতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান। 

অন্যান্যের মধ্যে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মেরিন বায়োলজিক্যাল রিসার্স ইনস্টিটিউটের ড. সব্যসাচী মজুমদার ও বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয়ের ‘ব্লু-ইকোনমি’ সেলের অতিরিক্ত সচিব ড. গোলাম শফি উদ্দীন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

মিয়ানমার একই সমুদ্রের সমান্তরাল ও ধারাবাহিক অংশে বিপুল পরিমাণ গ্যাসপ্রাপ্তির পর তা উত্তোলন এবং বিদেশে রফতানি করলেও আমরা নির্লিপ্ত আছি বলেও বক্তারা উল্লেখ করেন। মিয়ানমার এত বিশাল পরিমাণ গ্যাসের অধিকারী হলেও আমরা গ্যাসসহ অন্যান্য সম্পদ উত্তোলনে উদ্যোগ না নেওয়ায় সমুদ্রের যথাযথ ব্যবহার করতে পারছি না বলে অভিযোগ করেন তারা।

অনুষ্ঠানে কি-নোট পেপার উপস্থাপন করেন ডিপার্টমেন্ট অব পেট্রোলিয়াম অ্যান্ড মিনারেল ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের অধ্যাপক ড. বদরুল ইমাম।

দিনব্যাপী চারটি সেশনে দেশ-বিদেশের গবেষক, বিজ্ঞানী, অধ্যাপকসহ সংশ্লিষ্ট প্রতিনিধিরা সম্মেলনে যোগ দেন। 

/এসআই/এনআই/

লাইভ

টপ