জাপান টোব্যাকোর বিজ্ঞাপন ও প্রচার বন্ধ করতে হবে: প্রজ্ঞা

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৫:৪৬, মে ২১, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৬:২০, মে ২১, ২০১৯

জাপান টোবাকোর প্রমোশনার প্রচার

বিদ্যমান আইনি বিধিনিষেধ এড়িয়ে আগ্রাসী প্রচার চালাচ্ছে জাপান টোব্যাকো। এটি জাপান টোব্যাকোর মৃত্যু বিপণন কার্যক্রমের অন্যতম কূটকৌশল বলে মনে করে বেসরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান প্রজ্ঞা (প্রগতির জন্য জ্ঞান)। জনস্বাস্থ্যের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর তামাকজাত পণ্যের সব ধরনের প্রত্যক্ষ-পরোক্ষ বিজ্ঞাপন ও প্রচার এক্ষুনি বন্ধ করতে হবে বলেও দাবি জানিয়েছে প্রজ্ঞা।

প্রজ্ঞার নির্বাহী পরিচালক এবিএম জুবায়ের সই করা সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ দাবি জানানো হয়।

এতে বলা হয়েছে, সম্প্রতি বিভিন্ন গণমাধ্যমে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের জাপান ভ্রমণ ইতিহাস নিয়ে তারকাশিল্পী তাহসান খানের একটি অনুষ্ঠানের বিজ্ঞাপন প্রচার করা হচ্ছে। একটি অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে গণমাধ্যমে এ ধরনের ব্যাপক প্রচার অভূতপূর্ব ও নজিরবিহীন। এই প্রমোশনাল বিজ্ঞাপনে ব্যবহার করা হয়েছে জাপান টোব্যাকোর (জেটিআই) ব্র্যান্ড কালার এবং স্লোগান ‘জাপানিজ কোয়ালিটি ’। জাপান টোব্যাকো তাদের ব্র্যান্ড প্রমোশনের ক্ষেত্রে একই কালার ও স্লোগান ব্যবহার করে। সুতরাং নিঃসন্দেহে বলা যায় এই অনুষ্ঠানটি মূলত জাপান টোব্যাকোর ব্র্যান্ড প্রমোশনের জন্যই তৈরি করা হয়েছে।

প্রজ্ঞা বলেছে, জাপান টোব্যাকো বাংলাদেশের বাজারে প্রবেশের পর থেকেই আইন ভঙ্গ করে বিভিন্ন উপায়ে প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে। তাহসান খান বর্তমান সময়ের জনপ্রিয় শিল্পী এবং দেশের তরুণ সমাজের একজন আইকনও বটে। তামাক কোম্পানির অর্থায়নে তৈরি এ ধরনের অনুষ্ঠানে তার অংশগ্রহণ কোনোভাবেই কাম্য নয়।

প্রসঙ্গত, ধূমপান ও তামাকজাত পণ্য ব্যবহার (নিয়ন্ত্রণ) আইনের ৫ ধারা অনুযায়ী, প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে কোনও তামাকজাত পণ্য বা তামাকের ব্যবহার প্রবর্ধনের উদ্দেশ্যে যেকোনও ধরনের বাণিজ্যিক কার্যক্রম পরিচালনা নিষিদ্ধ এবং দণ্ডনীয় অপরাধ। কোনও ব্যক্তি কিংবা প্রতিষ্ঠান আইনের এই বিধান লঙ্ঘন করলে অনূর্ধ্ব তিন মাস বিনাশ্রম কারাদণ্ড বা অনধিক এক লাখ টাকা অর্থদণ্ড বা উভয় দণ্ডে দণ্ডনীয় হবে।

/এসআই/এসটি/এমওএফ/

লাইভ

টপ