নারী ৫ হাজার টাকা আয় করলেও টাকা কাটা হয়

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২৩:৫১, জুলাই ০৩, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:২৯, জুলাই ০৪, ২০১৯





পিকবাংলাদেশ উন্নয়ন গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (বিআইডিএস) সিনিয়র রিসার্চ ফেলো নাজনীন আহমেদ বলেছেন, যারা ২৫ হাজার টাকা বেতনের চাকরি করেন তাদেরকে আয়কর দিতে হয় না। কিন্তু নারী যখন সঞ্চয়পত্র থেকে ২৫ হাজার টাকা আয় করছে তখন তার কাছ থেকে ঠিকই টাকা কেটে রাখা হচ্ছে। শুধু তাই নয়, নারী যদি সঞ্চয়পত্র থেকে ৫ হাজার টাকাও আয় করে তাহলেও তার কাছ থেকে টাকা কেটে নেওয়া হয়। এটা নারীর জন্য বৈষম্য বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

রাজধানীর বাংলামোটরের উন্নয়ন সমুন্বয় কার্যালয়ে বুধবার (৩ জুলাই) আয়োজিত ‘এবারের বাজেট ও অন্তর্ভুক্তিমূলক উন্নয়ন’ শীর্ষক নাগরিক সংলাপে তিনি এসব কথা বলেন। সংলাপে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ও উন্নয়ন সমুন্বয়ের চেয়ারম্যান ড. আতিউর রহমান।
নাজনীন আহমেদ বলেন, যুবকদের ব্যবসায় উদ্যোগ, অর্থাৎ 'স্টার্টআপ' সৃষ্টির জন্য ১০০ কোটি টাকা চলতি অর্থবছরের বাজেটে বরাদ্দ রাখা হয়েছে। অন্যদিকে নারীদের জন্য আগে যে ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ ছিল তা সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। কিন্তু কেন সরিয়ে নেওয়া হয়েছে তার কোনও ব্যাখ্যা নেই।

তিনি উল্লেখ করেন, যুবকদের 'স্টার্টআপ' সৃষ্টির জন্য যে ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে সেখানে নারীকে প্রাধান্য দিতে হবে।
সংলাপে ঋণখেলাপিদের বিরুদ্ধে শক্ত ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য বাংলাদেশ ব্যাংককে আইনি ক্ষমতা দেওয়ার সুপারিশ করেন ড. আতিউর রহমান। তিনি বলেন, যারা টাকা চুরির জন্য ব্যাংক ঋণ নেয়, তাদের আলাদাভাবে চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নিতে হবে। বাংলাদেশ ব্যাংকের সেই সক্ষমতা আছে। কিন্তু তাদের আইনি ক্ষমতা দেওয়া দরকার।
তথাকথিত বেসরকারি খাতের ব্যাংক মালিকরা ঋণ নিয়ে তা ফেরত দিচ্ছেন না বলেও অভিযোগ করেন ড. আতিউর রহমান। 
লাগামহীন খেলাপি ঋণের কারণে ব্যাংকঋণের সুদের হার অনেক বেশি বলে সংলাপে উল্লেখ করেন বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ব্যাংক ম্যানেজমেন্টের (বিআইবিএম) সাবেক মহাপরিচালক তৌফিক আহমেদ চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘কস্ট অব ফান্ড’ কিংবা ‘ম্যানেজমেন্ট কস্ট’ ব্যাংকঋণের সুদের হার বেশি হওয়ার কারণ নয়। খেলাপি ঋণের কারণেই সুদের হার বেশি। 
নাগরিক সংলাপে আরও বক্তব্য রাখেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) সাবেক চেয়ারম্যান নাসির উদ্দিন আহমেদ, বিআইডিএসের সিনিয়র রিসার্চ ফেলো ড এস এম জুলফিকার আলী, বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক নির্বাহী পরিচালক কে এম জমসেদ উজ জামান।

 

/জিএম/টিএন/

লাইভ

টপ