আর্থিক প্রতিষ্ঠানের বরখাস্ত হওয়া কর্মকর্তাদের তথ্য কেন্দ্রীয় ব্যাংককে জানাতে হবে

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৭:৫৯, অক্টোবর ১০, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:০২, অক্টোবর ১০, ২০১৯

 

বাংলাদেশ ব্যাংকদুর্নীতির অভিযোগে বরখাস্ত হওয়া আর্থিক প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাদের তথ্য জানাতে বলেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। বৃহস্পতিবার (১০ অক্টোবর) সব আর্থিক প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহীদের কাছে পাঠানো এক সার্কুলারে এ নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

বাংলাদেশ ব্যাংক বলছে, কোনও কর্মকর্তা অর্থ আত্মসাৎ, দুর্নীতি, জাল-জালিয়াতি, নৈতিক স্খলনজনিত কারণে চূড়ান্তভাবে বরখাস্ত হলে তার ব্যক্তিগত তথ্য চূড়ান্তভাবে বরখাস্ত করার তিন কার্যদিবসের মধ্যে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কাছে পাঠাতে হবে।

‘স্ব-স্ব প্রতিষ্ঠানের শাস্তিপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের শাস্তিমূলক ব্যবস্থার তথ্যাদি সিএমএমএস (করপোরেট মেমোরি ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমে) সংরক্ষণ ও ব্যবহার’ শীর্ষক সার্কুলারে বলা হয়েছে, কোনও কর্মকর্তাকে চূড়ান্তভাবে বরখাস্ত করা হলে তাদের তথ্যাদি (নাম, পিতার নাম, মাতার নাম,জন্ম তারিখ,জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর, পাসপোর্ট নম্বর,স্থায়ী ঠিকানা,চূড়ান্তভাবে বরখাস্তের তারিখ ও কারণ) বাংলাদেশ ব্যাংকের অথরাইজড কর্মকর্তার মাধ্যমে সিএএমএস-এ এন্ট্রি করতে হবে।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশনায় উল্লেখ করা হয়েছে, চূড়ান্তভাবে বরখাস্ত করার তিন কার্যদিবসের মধ্যে প্রযোজনীয় তথ্য এন্ট্রি করে শাস্তিমূলক ব্যবস্থার পক্ষে ডকুমেন্টস্-এর কপি বাংলাদেশ ব্যাংকের সচিব বিভাগে পাঠাতে হবে। আদালত বা উপযুক্ত কর্তৃপক্ষ কর্তৃক কোনও কর্মকর্তার শাস্তি শিথিল বা মওকুফ করা হলে সিএমএএম থেকে ওই কর্মকর্তার তথ্য বাদ বা মুছে দেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট ডকুমেন্টস্-এর কপিসহ সচিব বিভাগকে তিন কার্যদিবসের মধ্যে অনুরোধ জানাতে হবে।

ইতোপূর্বে সিএমএমএস-এ এন্ট্রি করা তথ্যগুলো থেকে অর্থ আত্মসাৎ, দুর্নীতি,জাল-জালিয়াতি,নৈতিক স্খলনজনিত কারণে চূড়ান্তভাবে বরখাস্ত করা কর্মকর্তাদের তথ্য ব্যতীত অন্যান্য তথ্যগুলো মুছে বা বাদ দেওয়ার জন্য একটি তালিকা প্রস্তুত করে পরবর্তী ১০ কার্যদিবসের মধ্যে সচিব বিভাগে পাঠাতে হবে। পূর্ব-অভিজ্ঞতাসম্পন্ন কর্মকর্তা নিয়োগের আগে ওই কর্মকর্তার প্রয়োজনীয় তথ্য সিএমএমএস থেকে অবশ্যই যাচাই করে নিতে হবে।

 

/জিএম/এনআই/

লাইভ

টপ