behind the news
Rehab ad on bangla tribune
Vision Refrigerator ad on bangla Tribune

বিদায়ী বছরে জীবনযাত্রার ব্যয় বেড়েছে ৬ দশমিক ৩৮ শতাংশ

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট২০:৫৩, ডিসেম্বর ৩১, ২০১৫

কনজুমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশবিদায়ী ২০১৫ সালে দেশের মানুষের জীবনযাত্রার ব্যয় বেড়েছে ৬ দশমিক ৩৮ শতাংশ।  যা আগের বছরের তুলনায় শূন্য দশমিক ৪৪ পয়েন্ট কম। ২০১৪ সালে জীবনযাত্রার ব্যয় ছিল ৬ দশমিক ৮২ শতাংশ।
বেসরকারি সংস্থা কনজ্যুমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব) এর দ্রব্যমূল্য ও জীবনযাত্রার ব্যয় বিষয়ক বার্ষিক প্রতিবেদনে এ তথ্য তুলে ধরা হয়েছে। বৃহস্পতিবার বার্ষিক প্রতিবেদন-২০১৫ প্রকাশ করে সংগঠনটি।
ঢাকা শহরের ১৫টি বাজার ও বিভিন্ন সেবা-সার্ভিসের মধ্য থেকে ১১৪টি খাদ্যপণ্য, ২২টি নিত্য ব্যবহার্য সামগ্রী এবং ১৪টি সেবা সার্ভিসের তথ্য পর্যালোচনা করে এই তথ্য বের করেছে ক্যাব।

ক্যাবের প্রকাশনায় বলা হয়েছে, ২০১৫ সালে সার্বিক দ্রব্যমূল্য কিছুটা স্থিতিশীল থাকলেও অস্থির ছিল নিত্যপণ্যের বাজার। আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি তেলসহ নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের মূল্য হ্রাস পেলেও সুফল পায়নি দেশের মানুষ। বরং গ্যাস, বিদ্যুতের দাম অযৌক্তিকভাবে বাড়ানো হয়েছে। একই সঙ্গে অতীতের মত স্বাস্থ্যখাতে সেবার মান ছিল ব্যয়বহুল ও প্রশ্নবিদ্ধ।

ক্যাবের তথ্যে দেখা গেছে, ২০১৪ সালের তুলনায় মাংসের দাম বেড়েছে ২৫ দশমিক ১০ শতাংশ, মসলার দাম বেড়েছে ২২ দশমিক ৫৩ শতাংশ, শাকসবজিতে বেড়েছে ১৮ দশমিক ৬৪ শতাংশ। ডিমে বেড়েছে ১৩ দশমিক ১৬ শতাংশ, ডালে বেড়েছে ৮ দশমিক ০২ শতাংশ, ফলে বেড়েছে ৬ দশমিক ২৮ শতাংশ, পান-সুপারিতে বেড়েছে ৬ দশমিক ২৭ শতাংশ, গুড় ও চিনিতে বেড়েছে ১ দশমিক ৯৯ শতাংশ, চা পাতায় বেড়েছে ১ দশমিক ০২ শতাংশ এবং নারিকেল তেলে বেড়েছে ১ দশমিক ৩৩ শতাংশ।

পর্যালোচনায় দেখা গেছে, ২০১৫ সালে গৃহস্থালিতে গ্যাসের মূল্য বেড়েছে শতকরা ৪৪ দশমিক ৪৪ ভাগ, বিদ্যুতের গড় দাম বেড়েছে গড়ে শতকরা ২ দশমিক ৩২ শতাংশ এবং ওয়াসার পানি প্রতি হাজার লিটারে বেড়েছে ৫ দশমিক ৯৭ শতাংশ। দেশি থান কাপড়ে দাম বেড়েছে ৯ দশমিক ৬২ শতাংশ, শাড়িতে বেড়েছে ৬ দশমিক ৯৩ শতাংশ এবং গেঞ্জি তোয়ালে ও গামছায় বেড়েছে ২ দশমিক ৭১ শতাংশ। দেশি ও আমদানিকৃত পেঁয়াজ ও কাঁচা মরিচের মূল্য সবচেয়ে বেশি বেড়েছে। দেশি পেঁয়াজ শতকরা ৭৬ দশমিক ১৭ শতাংশ ও আমদানিকৃত পেঁয়াজ বেড়েছে ৭৪ দশমিক ০২ শতাংশ এবং কাঁচামরিচে বেড়েছে ২৯ দশমিক ৭১ শতাংশ। তবে এ সময়ে সবচেয়ে বেশি দাম কমেছে ডালডা ও ঘি-তে ১৩ দশমিক ১০ শতাংশ। আটা-ময়দায় কমেছে ৫ দশমিক ৭৫ শতাংশ, চালে ৫ দশমিক ৩০ শতাংশ, ভোজ্য তেলে ৫ দশমিক ১৪ শতাংশ, সুগন্ধি চালে কমেছে ৪ দশমিক ৫২ শতাংশ, গুঁড়ো দুধে কমেছে ৩ দশমিক ৪২ শতাংশ এবং লবণে কমেছে ০ দশমিক ৯৯ শতাংশ।

ক্যাবের গবেষণা অনুযায়ী, ২০১৫ সালে ঢাকা শহরে বাসা ভাড়া বেড়েছে গড়ে ৬ দশমিক ৩৩ শতাংশ। বাসা ভাড়া সবচেয়ে বেশি বেড়েছে বস্তি এলাকায় ১১ দশমিক ৪৩ শতাংশ। ফ্ল্যাট বাসায় ৪ দশমিক ৫০ শতাংশ।

ক্যাব মনে করে, আন্তর্জাতিক বাজারে নিত্য প্রয়োজনীয় বেশ কিছু পণ্যের মূল্য প্রায় ২০ শতাংশ বা অধিক হ্রাস পাওয়া সত্ত্বেও অভ্যন্তরীণ বাজারে তার প্রভাব তেমন পড়েনি। ভোগ্য পণ্যের আমদানি গুটিকতক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান নিয়ন্ত্রণ করায় এবং তাদের মধ্যে প্রতিযোগিতার পরিবর্তে বাজার বিভাজনের অদৃশ্য সমঝোতার ফলে ভোক্তা সাধারণ বিশ্ববাজারে মূল্য হ্রাসের সুফল থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

দ্রব্যমূল্যে নিয়ন্ত্রণ ও ভোক্তাদের অধিকার নিশ্চিত করতে বেশকিছু সুপারিশ করেছে সংগঠনটি।

এর মধ্যে রয়েছে, আমদানি বাণিজ্যকে অধিকতর প্রতিযোগিতামূলক করা, টিসিবির মাধ্যমে ‘লোকসান-নয়, লাভ-নয়’ ভিত্তিতে মানসম্পন্ন নিত্য প্রয়োজনীয় বিভিন্ন পণ্য নিয়মিত আমদানি ও বাজারজাতকরণের উদ্যোগ গ্রহণ করা।

গ্যাস, পানি, বিদ্যুতের দাম সহনীয় মাত্রায় রাখাসহ আন্তর্জাতিক বাজারের সাথে সমন্বয় রেখে দেশিয় বাজারে জ্বালানি তেলের দাম কমিয়ে আনা।

/জিএম/এফএইচ/

Ifad ad on bangla tribune

লাইভ

Nitol ad on bangla Tribune
টপ