behind the news
Vision  ad on bangla Tribune

কৃষি ও পল্লী ঋণের সুদের হার কমছে ২ শতাংশ

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট১৭:০১, জানুয়ারি ০১, ২০১৬

বাংলাদেশ ব্যাংকজানুয়ারি থেকে কৃষি ও পল্লী ঋণের সুদের হার ২ শতাংশ সুদ কমিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। ফলে আজ থেকে কৃষকেরা সর্বোচ্চ ১১ শতাংশ সুদে কৃষিঋণ নিতে পারবেন। ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত ১৩ শতাংশ হারে ঋণ নিয়েছে ব্যাংকগুলো।
সোমবার এ সংক্রান্ত একটি চিঠি বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে অর্থ মন্ত্রণালয়ের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগে পাঠানো হয়েছিল। আমানত এবং ঋণের সুদের হারের নিম্মমুখী প্রবণতা বিবেচনায় অগ্রাধিকার খাত হিসেবে এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগকে জানিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।
চিঠিতে বলা হয়েছে, বেসরকারি ও বিদেশি বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর গ্রামাঞ্চলে শাখা কম হওয়ায় তাদেরকে মাইক্রোক্রেডিট রেগুলেটরি অথরিটি’র (এমআরএ) অনুমোদনপ্রাপ্ত ক্ষুদ্রঋণ প্রতিষ্ঠানের (এমএফআই) অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে কৃষি ও পল্লী ঋণ বিতরণ করছে। এ সব প্রতিষ্ঠানের ঋণের সুদহার বর্তমানে ১৩ শতাংশ। কিন্তু ২০১৬ সাল থেকে এই হার ২ শতাংশ কমিয়ে সর্বোচ্চ ১১ শতাংশ করা হয়েছে।

আর্থিক খাত সংস্কার কর্মসূচির আওতায় ১৯৮৯ সালের পর থেকে ব্যাংকগুলো নিজেরাই সুদের হার নির্ধারণ করতে পারে। তবে বৈশ্বিক মন্দা-পরবর্তী সময়ে উৎপাদনশীল খাতে ঋণ বাড়ানোর লক্ষ্যে কৃষি, মেয়াদি শিল্প, নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য আমদানি এবং রফতানিমুখী শিল্পসহ বেশ কয়েকটি খাতে সুদের হারের সর্বোচ্চ সীমা নির্ধারণ করে বাংলাদেশ ব্যাংক।

এরপর ২০১১ সালে এক নির্দেশনার মাধ্যমে কয়েকটি খাত ছাড়া সুদ হারের ঊর্ধ্বসীমা প্রত্যাহার করা হয়। তখন কৃষি এবং মেয়াদি শিল্প সুদের হার নির্ধারণ করা হয় ১৩ শতাংশ। সব ধরনের রফতানি ঋণে ৭ শতাংশ এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য তথা চাল, গম, চিনি, ভোজ্য তেল, ডাল, ছোলা, পেঁয়াজ ও খেজুর আমদানিতে সুদের হারের সর্বোচ্চ সীমা ১২ শতাংশ। ২০১২ সালের জানুয়ারিতে আরেক নির্দেশনার মাধ্যমে প্রাক-জাহাজীকরণ রফতানি ঋণ এবং কৃষি ছাড়া অন্যান্য খাতে সুদের হারের ঊর্ধ্বসীমা প্রত্যাহার করে বাংলাদেশ ব্যাংক।

 /জিএম/এফএইচ/

লাইভ

Nitol ad on bangla Tribune
টপ