ঢাকা-কক্সবাজার রেলপথ প্রকল্পে ব্যয় বাড়ল ১৬ হাজার কোটি টাকা

Send
বাংলা টিব্রিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৯:০০, এপ্রিল ১৯, ২০১৬ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:৩৬, এপ্রিল ১৯, ২০১৬

একনেক সভাচট্টগ্রাম থেকে কক্সবাজারমুখী রেলপথ নির্মাণ প্রকল্পের ব্যয় ১৬ হাজার ১৮২ কোটি টাকা বাড়িয়েছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক)। ফলে এ প্রকল্পের মোট ব্যয় দাঁড়িয়েছে ১৮ হাজার ৩৪ কোটি টাকা। ২০১০ সালে অনুমোদনের সময় মূল প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছিল ১ হাজার ৮৫২ কোটি টাকা।
প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে চট্টগ্রামের দোহাজারী থেকে রামু হয়ে কক্সবাজার পর্যন্ত ১০০ কিলোমিটার এবং রামু থেকে মিয়ানমার সীমান্তবর্তী বান্দরবানের নাইখ্যাংছড়ি ঘুমধুম পর্যন্ত ২৮ কিলোমিটার পথ ট্রেনে যাওয়া যাবে।
মঙ্গলবার রাজধানীর শেরে বাংলা নগরে এসইসি সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত একনেক বৈঠকে দোহাজারী প্রকল্পের ব্যয় ও সময়সীমা বাড়ানোর সংশোধনী প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একনেক বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন। বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।
তিনি বলেন, দোহাজারী থেকে রামু হয়ে কক্সবাজার এবং রামু থেকে মিয়ানমার সীমান্তের ঘুমধুম পর্যন্ত রেললাইন নির্মাণ প্রকল্পের ব্যয় ১৬ হাজার ১৮২ কোটি টাকা বাড়ানো হয়েছে। পাশাপাশি প্রকল্পটির মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে ২০২২ সাল পর্যন্ত। ২০১০ সালে অনুমোদনের পর ২০১৩ সালের মধ্যে কাজ শেষ করার লক্ষ্য ঠিক করা হয়েছিল প্রকল্পটির।
মুস্তফা কামাল বলেন, প্রকল্পটির মেয়াদ ২০২২ সাল পর্যন্ত বাড়ানো হলেও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী তিন বছরের মধ্যেই দোহাজারী থেকে রামু হয়ে কক্সবাজার পর্যন্ত রেলপথ নির্মাণের কাজ শেষ করতে এবং প্রকল্পকে ফাস্টট্র্যাক প্রকল্পের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করতে নির্দেশনা দিয়েছেন।
আর মিটার গেজের পরিবর্তে এখন ডুয়েল গেজে (মিটার গেজ এবং ব্রড গেজ) রূপান্তরিত করার কারণে প্রকল্পের ব্যয়ও বেড়েছে বলে জানান পরিকল্পনামন্ত্রী।
এই প্রকল্পের জন্য এশিয়া উন্নয়ন ব্যাংক- এডিবি ১৩ হাজার ১১৫ কোটি টাকা ঋণ দেবে এবং বাকি চার হাজার ৯১৯ কোটি টাকা আসবে সরকারের নিজস্ব তহবিল থেকে।


মঙ্গলবারের একনেক বৈঠকে মোট ৮টি প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। প্রকল্পগুলোর মোট ব্যয় ধরা হয়েছ ১৮ হাজার ৬৫৭ কোটি ২৭ লাখ টাকা। এর মধ্যে সরকারি অর্থায়ন ৫ হাজার ৪৯৫ কোটি ৩৯ লাখ টাকা, সংস্থার নিজস্ব তহবিল ৪৬ কোটি ৪৭ লাখ এবং প্রকল্প সাহায্য রয়েছে ১৩ হাজার ১১৫ কোটি ৪১ লাখ টাকা।
অন্যান্য প্রকল্পগুলোর মধ্যে রয়েছে- ৫৯ কোটি ৩০ লাখ টাকা ব্যয়ে বাংলাদেশ রেলওয়ের জন্য ১০০টি মিটার গেজ যাত্রীবাহী ক্যারেজ পুনর্বাসন প্রকল্প, ১৫৪ কোটি ৮৯ লাখ টাকা ব্যয়ে যাত্রাবাড়ী মোড় হতে ত্রিমুখী রাস্তা সম্প্রসারণ ও উন্নয়ন প্রকল্প, ১২৩ কোটি ৫৭ লাখ টাকা ব্যয়ে বড়তাকিয়া থেকে মিরসরাই অর্থনৈতিক অঞ্চল সংযোগ সড়ক নির্মাণ প্রকল্প, ৯০ কোটি ১৯ লাখ টাকা ব্যয়ে সাদুল্লাপুর-পীরগঞ্জ-নবাবগঞ্জ জেলা মহাসড়ক নির্মাণ প্রকল্প, ৮৪ কোট ১৬ লাখ টাকা ব্যয়ে শাহবাজপুর সেতু নির্মাণ ও পুনর্বাসন প্রকল্প, ৮৪ কোটি টাকা ব্যয়ে মনু নদী সেচ প্রকল্প আওতাধীন কাশিমপুর পাম্প হাউস পুনর্বাসন প্রকল্প এবং ৪২ কোটি ৭৮ লাখ টাকা ব্যয়ে মাল্টি চ্যানেল স্লিপওয়ে নির্মাণ প্রকল্প।
/এসএনএইচ /এএইচ/

লাইভ

টপ