behind the news
Vision  ad on bangla Tribune

আসল ব্লগার চিনবেন কিভাবে!

আরিল্ড ক্লোক্কেরহৌগ১৬:২৬, ডিসেম্বর ২০, ২০১৫

Arild_01‘আমি একজন ব্লগার’—বেশ আত্মপ্রসাদের সঙ্গেই নিজের পরিচয় দেওয়ার পর এ কথা বললেন তিনি। আমি হেসে জানালাম, ভিড়ের মধ্যে বন্ধুদের সঙ্গে তাকে দেখে আমিও এমনটাই ধারণা করেছিলাম। আমার জন্য সেটা স্বাভাবিকও। কেননা, বাংলাদেশে প্রথম বাংলা ব্লগ শুরু হওয়ার পর থেকে গত ১০ বছরে হাজার হাজার ব্লগারের সঙ্গে আমি পরিচিত হয়েছি ।

শনিবার (১৯ ডিসেম্বর) বাংলাদেশের ব্লগাররা ৭ম ব্লগ দিবস উদযাপন করলেন। এ প্রসঙ্গেই একটি বিষয়ে ভাবছিলাম। তা হচ্ছে, কিভাবে একজন আসল ব্লগারকে শনাক্ত করা সম্ভব!

না, আমি চাপাতিধারীদের, যারা কিনা মূলধারার সংবাদপত্রেরও পাঠক নন, তাদের কোনও সূত্র দিতে চাচ্ছি না। কেবল দেখাতে চাচ্ছি, কী করে একজন আসল ব্লগারকে চেনা যায়, ব্লগারদের সম্পর্কে বিশদ ধারণা দেওয়ার চেষ্টা করছি আমি।

ব্লগাররা এতো অন্যরকম- যারা চমৎকার ও বৈচিত্র্যপূর্ণ অভিমত, উপস্থিতবুদ্ধি আর চরিত্রের সমাহার ঘটিয়েছেন, তাদের সবাইকে এক কাতারে ‘ব্লগার’ বলে নির্দিষ্ট করাই মুশকিল। কিন্তু কিছু-কিছু বিশেষত্ব তো আছেই, যেখানে তারা আলাদা।

প্রথমত, আসল ব্লগাররা প্রকৃতপক্ষে গল্পকথক, তারা অবলীলায় মানুষের কল্পনাজগত ও আগ্রহকে এক সুতোয় গাঁথতে পারেন।

ব্লগাররা সবসময়ই কিছু না কিছু বিষয়ে ওয়াকিবহাল থাকেন, কোনও ইস্যু বা বিষয় সম্পর্কে যখনই আলোচনা ওঠে, তারা নিশ্চুপ থাকতে পারেন না।

প্রবৃত্তিগতভাবেই দিনের পর দিন ওই সব বিষয়ে যুক্ত থাকেন। নিত্য নতুন পোস্ট দিয়ে সম্পৃক্ত থাকেন।

বাংলা ব্লগিংয়ের সংস্কৃতি কমিউনিটি-ভিত্তিক ও সম্পর্ককেন্দ্রিক। একজন ব্লগারকে সবসময়ই অন্য ব্লগারদের সঙ্গে গভীর আড্ডায় ডুবে থাকতে দেখা যায়, সহকর্মীদের প্রতি নির্ভরশীলতা ও আস্থা রাখার চর্চাও রয়েছে তাদের মধ্যে। এরফলে তারা কমিউনিটিভিত্তিক সম্পর্কের ফলে জাতীয় পর্যায়ে সংগঠিত হওয়ার ক্ষমতাও রাখেন।

বাংলা ব্লগাররা নিজেদের পকেটের পয়সা খরচ করে পোস্টার ছাপিয়ে, বিলি করে ইভটিজিং সম্পর্কে সচেতনতা গড়ে তুলেছেন, উত্তরবঙ্গে গিয়ে শীতবস্ত্র বিতরণ করেছেন, দরিদ্র ও অসহায় শিশুদের জন্য তহবিল গড়ে তোলার জন্যও সাফল্যের সঙ্গে কাজ করেছেন তারা।

এ সমস্ত কর্মকাণ্ড ব্লগারদের অনলাইনে পরস্পর যুক্ত থাকার ফলেই সম্ভব হয়েছে।

ব্লগাররা সচরাচর প্রচলিত ধারণা আর মতবাদে প্রভাবিত হন না, যখনই তাদের মনে কোনও প্রশ্ন আসে—‘কেন’ অথবা ‘কিভাবে’-এর উদয় হয়, তখনই একটি নতুন পোস্ট দেখা যায়।

ব্লগাররা তথ্যসমৃদ্ধ, মেধাবী ও স্বতঃস্ফূর্ত, তাদের আগ্রহের পরিসরে কোনও সীমানা নেই।

নিষ্ঠুরভাবে হত্যাকাণ্ডের শিকার হওয়া সাংবাদিক সাগর নানা স্পর্শকাতর ইস্যু নিয়ে তার গবেষণাগুলো একত্র করে একটি ব্লগ শুরু করেছিলেন।

ক্ষতিকর পাওয়ার প্ল্যান্টই হোক আর একপেশে জ্বালানি চুক্তিই হোক, সব ইস্যুতে আন্দোলন গড়ে তুলতে সক্ষম এই ব্লগাররা।

বলাবাহুল্য, আসল  ব্লগারের প্রধান বৈশিষ্ট্য তার সাহস।

বাংলা ব্লগারদের দেশের জন্য ভালোবাসা রয়েছে, নিজের সংস্কৃতি আর ঐতিহ্যের প্রতি রয়েছে সম্মানবোধ।

ব্লগিংয়ের মাধ্যমে গল্প বলেন তারা, যে সব গল্প সবার জন্য উন্মুক্ত করে দেন অনলাইনে। নিজের দেশের প্রতি ভালবাসার যা কিছু, সব নিয়েই লিখতে থাকেন তারা।

অন্যদের মন্তব্যের মাধ্যমে দ্রুত প্রতিক্রিয়া পেয়ে যান ব্লগাররা, উৎসাহিত হন নতুন লেখার প্রতি। অনেক ব্লগারই হয়ে গেছেন লেখক, সাংবাদিক অথবা কবি।

পাঠক, আশা করি আসল ব্লগারদের একটি স্পষ্ট ছবি তুলে ধরতে পেরেছি। বাংলা ব্লগার চেনার উপায়ও বাতলে দিতে পেরেছি।

যদিও সবচেয়ে ভালো উপায় হচ্ছে ভালো একটি ব্লগ খুঁজে বের করে তা পড়ে ফেলা, তাতে ব্লগিং জগতের অনাস্বাদিতপূর্ব অভিজ্ঞতা হতে পারে আপনার। নিজের চিন্তার জগতে ব্লগারদের লেখার প্রভাব দেখে নিজেই বিস্মিত হবেন আপনি।

শুভ ব্লগিং …

লেখক: সহ-প্রতিষ্ঠাতা, সামহোয়্যার ইন ব্লগ 

(লেখক নিজের ছবি প্রকাশে অনিচ্ছুক)

*** প্রকাশিত মতামত লেখকের একান্তই নিজস্ব। বাংলা ট্রিবিউন-এর সম্পাদকীয় নীতি/মতের সঙ্গে লেখকের মতামতের অমিল থাকতেই পারে। তাই এখানে প্রকাশিত লেখার জন্য বাংলা ট্রিবিউন কর্তৃপক্ষ লেখকের কলামের বিষয়বস্তু বা এর যথার্থতা নিয়ে আইনগত বা অন্য কোনও ধরনের কোনও দায় নেবে না।

সম্পর্কিত সংবাদ

 
 
 
 

লাইভ

Nitol ad on bangla Tribune

কলামিস্ট

টপ