ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তিতাসের ২৪ নম্বর কূপে খনন শুরু চার মাসের মধ্যে জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হচ্ছে ২৫ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস

Send
ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৫:২২, জুলাই ১৮, ২০১৬ | সর্বশেষ আপডেট : ১৬:৪৪, জুলাই ১৮, ২০১৬

তিতাসের ২৪ নম্বর কূপবাংলাদেশ গ্যাস ফিল্ডস কোম্পানি লিমিটেডের (বিজিএফসিএল) এর অধীনে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলার কুট্টাপাড়া এলাকায় তিতাসের ২৪ নং কূপের খনন কাজের উদ্বোধন করা হয়েছে। সোমবার (১৮ জুলাই) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে কূপ খনন কাজের উদ্বোধন করেন বিজিএফসিএল এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশল মো. কামরুজ্জামান। আগামী চার মাসের মধ্য এ কূপ থেকে অন্তত ২৫ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হবে বলে জানান তিনি।

কূপ খনন উদ্বোধন অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন- বিজিএফসিএল এর মহাব্যবস্থাপক প্রকৌশলী আহমেদ হোসেন, শফিকুল ইসলাম, কোম্পানি সচিব মতিউর রহমান, সংশ্লিষ্ট প্রকল্প পরিচালক গোলাম মোরতেজাসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা।

কূপ খনন প্রকল্পের পরিচালক গোলাম মোরতেজা জানান, চীনের সরকারি প্রতিষ্ঠান সিনোপেক ইন্টারন্যাশনাল পেট্রোলিয়াম সার্ভিস করপোরেশন কূপটির খনন কাজ শুরু করে। আগামী বছরের (২০১৭) জানুয়ারি মাসের শেষ সপ্তাহে এ কূপের খনন কাজ সম্পন্ন হবে। এরপর ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহে এ কূপ থেকে জাতীয় গ্রীডে গ্যাস সরবরাহ করা হবে বলে আশা করছেন কর্তৃপক্ষ।

গ্যাস ফিল্ডস কোম্পানি লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী কামরুজ্জামান জানান, ২০১২ সালের অক্টোবর মাসে বাপেক্সএর মাধ্যমে তিতাস গ্যাস ফিল্ডের ৩৩৫ বর্গ কিলোমিটার এলাকা জুরে (৩-ডি) ত্রি-মাত্রিক সিসমিক সার্ভে জরিপ করা হয়। এই জরিপের ভিত্তিতে এডিবি এবং জিওবি অর্থায়নে মোট ৯শ  কোটি ৩০লাখ টাকা ব্যয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মোট ৪টি গ্যাস কূপ এবং ২টি প্রসেস প্ল্যান্ট স্থাপনের সিদ্ধান্ত হয়। এরই ধারাবাহিকতায় ইতোমধ্যে তিতাসের ২৫ এবং ২৬ নং কূপের খনন কাজ শেষ হয়েছে। তিতাসের ২৪ নম্বর কূপ

আজ সোমবার (১৮ জুলাই) চীনের সরকারি প্রতিষ্ঠান সিনোপেক ইন্টারন্যাশনাল পেট্রোলিয়াম সার্ভিস কর্পোরেশন কূপটির খনন কাজ শুরু করে। ২৪ নং কূপের খনন কাজ শেষ হলে জাতীয় গ্রিডে আগামী ৪ মাসের মধ্য ২৫ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস যুক্ত হবে। আগামী দুই মাসের মধ্যে ২৪ নং কূপের পাশেই ২৩ নং কূপের খনন কাজ শুরু হবে।

এডিবি এবং জিওবি’র অর্থায়নে মোট ৯০৯ কোটি টাকা ব্যয়ে এই প্যাকেজে চারটি কূপ খনন করা হচ্ছে বলে জানান তিনি। এর মধ্যে এডিবি থেকে আসবে ৬৮৬ কোটি ৭০ লাখ টাকা এবং জিওবি থেকে ২২৩ কোটি ২৬ লাখ টাকা। এর মধ্যে ২৪ নম্বর কূপটি তৃতীয়। ইতোমধ্যে ২৫ এবং ২৬ নম্বর কূপের কাজ সম্পন্ন হয়েছে। কিছুদিনের মধ্যেই ২৪ নম্বর কূপের পাশেই শুরু হবে ২৩ নম্বর কূপের কাজ।

তিনি জানান প্রায় ১২ হাজার ১৭২ ফুট (৩৭১০  মিটার) গভীর কূপটির খনন শেষ হলে দৈনিক প্রায় ২০-২৫ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস জাতীয় গ্রিডে সরবরাহ করা সম্ভব হবে। বাংলাদেশ গ্যাস ফিল্ডস কোম্পানি বর্তমানে দৈনিক সর্বোচ্চ ৮৩০ মিলিয়ন ঘনফুট হারে গ্যাস উৎপাদন করছে। যা দেশের মোট গ্যাস উৎপাদনের শতকরা ৩০ ভাগ।

আরও পড়ুন- 

জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে আবারও সবাইকে সতর্ক করলেন প্রধানমন্ত্রী
জামালপুরের ৩ রাজাকারের ফাঁসি, ৫ জনের আমৃত্যু কারাদণ্ড

/এফএস/ 

লাইভ

টপ