গৌরনদীতে বিএনপি নেতার বাড়িতে যুব ও ছাত্রলীগের হামলা, আহত ৮

Send
বরিশাল প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ২১:০০, নভেম্বর ১২, ২০১৬ | সর্বশেষ আপডেট : ২১:০৩, নভেম্বর ১২, ২০১৬

বরিশালের গৌরনদী উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক আবুল হোসেন মিয়ার বাসায় যুব ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা হামলা ও ভাঙচুর করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এসময় বিএনপির ৮ নেতা-কর্মী আহত হয়েছেন। শনিবার দুপুরে টরকী বন্দরে আবুল হোসেন মিয়ার বাস ভবনে এ ঘটনা ঘটে। তবে এ ঘটনায় পুলিশ জিজ্ঞাসাবোদের জন্য বিএনপির ৮ নেতা-কর্মীকে আটক করেছে।

গৌরনদী উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক আবুল হোসেন মিয়া জানান,  আজ সকাল ১০টায় তার টরকী বন্দরের বাস ভবনে মাহিলাড়া ইউনিয়ন বিএনপি কমিটি গঠন করার লক্ষ্যে এক সভা অনুষ্ঠিত হচ্ছিল। দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে সভা চলাকালে পৌর যুবলীগের সাধারন সম্পাদক আল আমীন হাওলাদার, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জুবায়ের ইসলাম সান্টু, সরকারি গৌরনদী কলেজ ছাত্র সংসদের ভিপি সুমন মাহমুদের নেতৃত্বে যুব ও ছাত্রলীগের ২০ থেকে ২৫ জন নেতা-কর্মী মোটরসাইকেল মহড়া দিয়ে তার বাসায় হামলা চালায়।

হামলাকারীরা তার বাসার মধ্যে সভাস্থলে ঢুকে অশ্লীল ভাষায় গালগাল এবং মাহিলাড়া ইউনিয়ন বিএনপি আহ্বায়ক বুলবুল চোকদার (৫০), য়ুগ্ম আহ্বায়ক স্বজল ভোস, যুবদল নেতা মোয়াজ্জেম হোসেন, শহীদ, যুবদল কর্মী কায়েছ হোসেন (৩৬), শামীম সিকদার (৩৮), ফুয়াদ হোসেন (৩২), হাসানকে (৩০) মারধর করে আহত করে। এ সময় বাসার ২টি জানালার গ্লাস ভাঙচুর করে তারা।  খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

তবে অভিযোগ অস্বীকার করে পৌর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আল-আমিন হাওলাদার বলেন, ‘আমরা টরকী বন্দরে গিয়েছিলাম। সেখানে বিএনপি ও জামায়াতের যৌথ সভায় হাজারখানেক অপরিচিত লোক দেখে তাদের সেখান থেকে চলে যেতে বলেছি মাত্র। ’

গৌরনদী থানার ওসি মো. আলাউদ্দিন মিলন জানান, বিএনপি নেতা আবুল হোসেন  শারীরিকভাবে অসুস্থ। তাকে দেখতে দলের কিছু নেতা শনিবার তার বাসায় যায়। এসময় যুবলীগ ও ছাত্রলীগের কিছু নেতা সেখানে গিয়ে বিএনপি নেতাদের সঙ্গে বাগবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে উভয় পক্ষকে সরিয়ে দেয় এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

/এমডিপি/

 

লাইভ

টপ