Vision  ad on bangla Tribune

রংপুরে স্বামীর দায়ের কোপে স্ত্রীর হাত বিচ্ছিন্ন!

রংপুর প্রতিনিধি১৪:৪৭, ডিসেম্বর ০২, ২০১৬

রংপুর নগরীর জুম্মাপাড়া এলাকায় সিটি করপোরেশনের ক্লিনার জাহেদা বেগমকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করেছেন স্বামী রশিদুল ইসলাম। এতে তার বাম হাত শরীর থেকে প্রায় বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। ওই হাত কেটে ফেলতে হবে বলে আশঙ্কা করছেন চিকিৎসকরা। শুক্রবার সকালে এ ঘটনা ঘটে।

গুরুতর আহত জাহেদা বেগম জানান, নগরীর কেরানীপাড়া মহল্লায় মানুষের জমিতে ঘর তুলে বসবাস করেন তারা। চার ছেলেমেয়ে নিয়ে অভাব অনটনের কারণে রংপুর সিটি করপোরেশনে ক্লিনারের চাকরি করেন তিনি। পাশাপাশি অন্যের বাড়িতে ঝিয়ের কাজ করে কোনও রকমে জীবিকা নির্বাহ করে আসছেন। তার স্বামী রশিদুল ইসলাম রিকশাচালক হলেও বেশিরভাগ সময় রিকশা না চালিয়ে বাড়িতে বসে থাকেন।

তিনি আরও জানান, অকারণেই স্বামী তাকে সন্দেহ করেন। এসব নিয়ে বৃহস্পতিবার রাতে স্বামীর সঙ্গে তার ঝগড়া হয়। শুক্রবার সকালে নগরীর জুম্মাপাড়া মহল্লায় সড়ক ঝাড়ু দেওয়ার সময় তার স্বামী দা দিয়ে হামলা চালান। প্রথমে মাথা ও দুই হাতে দা দিয়ে কোপাতে থাকেন। তার বাম হাত শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হওয়ার উপক্রম হয়েছে। ডাক্তাররা বলেছেন এ হাতটি কেটে ফেলতে হবে।

বর্তমানে জাহেদা বেগম রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ৩২ নম্বর অর্থপেডিকস ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন আছেন। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

গুরুতর আহত জাহেদা বেগমের বড় মেয়ে রাশেদা ও বোন সুফিয়া বেগম জানান, অর্থের অভাবে প্রয়োজনীয় ওষুধ কিনতে না পারায় তার অবস্থার আরও অবনতি হচ্ছে।

এ ব্যাপারে কর্তব্যরত ইন্টার্নি চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা বলতে চাইলে তারা কথা বলতে রাজি হননি। শনিবার ডাক্তাররা আসার পর তারাই এ বিষয়ে কথা বলবেন বলে জানান।

এ ব্যাপারে কোতোয়ালি থানার ওসি জাহিদুল ইসলাম বলেন, এ বিষয়ে কেউ অভিযোগ করেনি। তবে অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

/বিটি/

samsung ad on Bangla Tribune

লাইভ

টপ