behind the news
 
Vision  ad on bangla Tribune

বগুড়ায় ৪৭টি প্রাচীন মুদ্রা উদ্ধার

বগুড়া প্রতিনিধি১৫:১৯, মার্চ ২১, ২০১৭

বগুড়ার শাজাহানপুরের কামারপাড়া গ্রামে একটি বসতবাড়ি সংস্কার করতে গিয়ে মাটির নিচ থেকে ৪৭টি প্রাচীন রুপার মুদ্রা পাওয়া গেছে। পুলিশ মুদ্রাগুলো উদ্ধার করেছে। এগুলো ১৮৪০ সাল থেকে ১৯০১ সালের বিভিন্ন শাসকের আমলের।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, শাজাহানপুর উপজেলার চোপীনগর ইউনিয়নের কামারপাড়া পশ্চিমপাড়া গ্রামের দিনমজুর নুরুল ইসলাম সোমবার সকাল থেকে তার বাড়ির সংস্কার কাজ করছিলেন। বিকালের দিকে কোদালের আঘাতে ছোট একটি মাটির হাড়ি ভেঙে ধাতব মুদ্রা বেরিয়ে আসে। নুরুল ইসলামের ভাগিনা সেলিম কয়েকটি মুদ্রা প্রতিবেশীদের দেখান। দিনমজুর নুরুল ইসলামের বাড়িতে ‘গুপ্তধন’ পাওয়া গেছে এমন খবর পুরো গ্রামে ছড়িয়ে পড়ে। বিপুল সংখ্যক মানুষ মুদ্রাগুলো দেখার জন্য ওই বাড়িতে ভিড় করেন। পরিবারের সদস্যরা এসব মুদ্রা ‘গুপ্তধন’ ভেবে গোপন করার চেষ্টা করেন। খবর পেয়ে শাজাহানপুর থানার এসআই  ফজলুল হক ফোর্স নিয়ে সন্ধ্যার দিকে ঘটনাস্থলে যান। তখন বাড়ির মালিক ও পরিবারের সদস্যরা পুলিশকে ৮টি মুদ্রা পাওয়ার কথা স্বীকার করেন। প্রতিবেশীদের তথ্য মতে মুদ্রার সংখ্যা বেশি হওয়ায় পুলিশ বাড়ির লোকজনদের জিজ্ঞাসাবাদ করতে থাকে। তারা তিন দফায় ৪৭টি মুদ্রা বের করে দেন। এরপরও সন্দেহ হলে পুলিশ নুরুল ইসলামের ছেলে কলেজছাত্র আবদুর রহিম বিপ্লবকে থানায় এনে জিজ্ঞাসাবাদ করে। পরে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

উদ্ধার করা মুদ্রাগুলো ১৮৪০ সাল থেকে ১৯০১ সালের বিভিন্ন শাসকের সময়ের। মুদ্রার গায়ে ‘EDWARD VII’, ‘VICTORIA EMPRESS’, ‘VICTORIA QUEEN’, লেখা রয়েছে।

চোপীনগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোজাফ্ফর রহমান, ইউপি সদস্য মেহেদী হাসান জানান, নুরুল ইসলামের পূর্ব পুরুষরা হয়তো ভবিষ্যতের কথা ভেবে মাটির হাড়িতে মুদ্রাগুলো পুঁতে রেখেছিলেন।

শাজাহানপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল্লাহ আল-মাছউদ চৌধুরী জানান, ৪৭টি মুদ্রা তার থানা হেফাজতে রয়েছে। আদালতকে অবহিত করা হবে। আদালতের নির্দেশ অনুসারে মুদ্রাগুলো যাদুঘর বা প্রত্নতত্ত্ব অধিদফতরে জমা দেওয়া হবে।

/বিএল/

Global Brand  ad on Bangla Tribune

লাইভ

IPDC  ad on bangla Tribune
টপ