Vision  ad on bangla Tribune

কুমিল্লায় স্বামীকে হত্যার দায়ে স্ত্রী ও প্রেমিকের ফাঁসি

কুমিল্লা প্রতিনিধি১৮:২০, মার্চ ২১, ২০১৭

ফাঁসিপরকীয়া প্রেমের জের ধরে কুমিল্লা আদালত কম্পাউন্ডে অবস্থিত অবদার আলী হোটেলের কর্মচারী জহির মিয়াকে হত্যার দায়ে স্ত্রী ও তার প্রেমিককে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দিয়েছেন কুমিল্লার আদালত। মঙ্গলবার (২১ মার্চ) এ আদেশ দেন কুমিল্লার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ৩য় আদালতের বিচারক এম আলী আহমেদ।
কুমিল্লা জেলা পাবলিক প্রসিকিউটর কার্যালয়ের তথ্য সেবাকেন্দ্র সূত্রে ও মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০০৭ সালের ১৮ ফেব্রুয়ারি রাত সাড়ে ১০টার সময় নগরীর কাপ্তান বাজারের বাসিন্দা জহির মিয়ার শারীরিক অসুস্থতার সুযোগে স্যালাইনের সঙ্গে বিষাক্ত ওষুধ দিয়ে, মুখে কস্টেপ ও বালিশ চাপা দিয়ে হত্যা করা হয়। এ ব্যাপারে জহির মিয়ার বড়ভাই বাদী হয়ে জহির মিয়ার স্ত্রী একই জেলার বুড়িচং উপজেলার ভারেল্লা গ্রামের রওশন আলীর মেয়ে শিরিন আক্তারসহ অজ্ঞতনামা তিনজনকে আসামি করে কুমিল্লার ১ম শ্রেণির ম্যাজিস্ট্রেট হাকিম ১নং আদালতে হত্যা মামলা দায়ের করেন।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই মো. নবী উল্লাহ মামলার তদন্ত করে শিরিন আক্তারের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় ২০০৮ সনের ২৯ ফেব্রুয়ারি শিরিন আক্তারের (২৭) ও নগরীর ঝাঁকুনীপাড়ার মৃত কুমোদ চন্দ্র ভট্টাচার্যের ছেলে দুলাল চন্দ্র ভট্টাচার্যের (২৮) বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করেন। পরবর্তীতে মামলাটি বিচারে আসলে ১৫ জন স্বাক্ষীর মধ্যে ১৪ জন স্বাক্ষীর স্বাক্ষ্য গ্রহণ শেষে আসামি শিরিন আক্তার ও দুলাল চন্দ্র ভট্টাচার্যকে মৃত্যুদণ্ডাদেশ দেন আদালত।
রাষ্ট্রপক্ষে কুমিল্লার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ ৩য় আদালতের অতিরিক্ত পিপি অ্যাড. মো. নূরুল ইসলাম এবং আসামি পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন অ্যাড. রফিকুল ইসলাম।

/এআর/

samsung ad on Bangla Tribune

লাইভ

টপ