behind the news
Vision  ad on bangla Tribune

৬৬ সংগঠনের বিবৃতিসাম্প্রদায়িক উত্তেজনা সৃষ্টির চেষ্টা করছেন শামীম ওসমান

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি০৩:৫১, এপ্রিল ২১, ২০১৭

নারায়ণগঞ্জে হেফাজত নেতার সমর্থনে মসজিদে বক্তব্য রাখেন শামীম ওসমান

নারায়ণগঞ্জের সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ও নিহত তানভীর মুহাম্মদ ত্বকীর বাবা রফিউর রাব্বীর বিরুদ্ধে হেফাজত নেতার মামলাকে শামীম ওসমানের ষড়যন্ত্র দাবি করে এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন জেলার রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বরা।

বৃহস্পতিবার রাতে গণমাধ্যমে পাঠানো নারায়ণগঞ্জের ৬৬টি রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতাদের স্বাক্ষরিত বিবৃতিতে এ দাবি করা হয়েছে।

তারা দাবি করেন, ‘স্থানীয় মৌলবাদী সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠীকে স্বার্থে প্রয়োজনে ব্যবহার করে সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা সৃষ্টির অপকৌশল নিয়েছেন সরকার দলীয় স্থানীয় সংসদ সদস্য শামীম ওসমান।  

বিবৃতিতে তারা উল্লেখ করেন, ‘নারায়ণগঞ্জের একটি চিহ্নিত মহল বিভিন্ন অজুহাতে স্থানীয় মৌলবাদী সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠীকে তাদের হীন স্বার্থে ব্যবহার প্রয়োজনে বিভিন্ন সময় এখানে সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা তৈরি করার অপকৌশল গ্রহণ করে আসছে। এক সময় শিক্ষক শ্যামল কান্তি ভক্ত এর বিরুদ্ধে তাদের মাঠে নামানোর চেষ্টা করেছে। নিজেদের অপরাধ ঢাকবার প্রয়োজনে আজকে আবার তারা সে পুরানো চেষ্টায় লিপ্ত হয়েছে। আমরা মনে করি মেধাবী কিশোর তানভীর মুহাম্মদ ত্বকী হত্যার বিচার প্রার্থীদের নিবৃত করার কৌশল হিসেবেই এ হত্যায় অভিযুক্ত ওসমান পরিবার হেফাজতকে আজকে মাঠে নামিয়ে সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা তৈরির চেষ্টা করছে।

বিবৃতিতে বলা হয়, বুধবার ১৯ এপ্রিল হেফাজতে ইসলামের নারায়ণগঞ্জ জেলার সমন্বয়ক ফেরদাউসুর রহমান সাংস্কৃতিক সংগঠক নিহত ত্বকীর বাবা রফিউর রাব্বি’র বিরুদ্ধে ধর্ম অবমাননার অভিযোগ এনে মামলা দায়ের করেছেন যা মিথ্যা ও বানোয়াট। ২০১৩ সালের ৫ মে ঢাকার মতিঝিলে হেফাজতে ইসলামের যে তাণ্ডব অনুষ্ঠিত হয় তার পরদিন ৬ মে নারায়ণগঞ্জেও তা অব্যাহত ছিল। সে তাণ্ডবে নারায়ণগঞ্জে দু’জন পুলিশসহ আরও দু’জন বিজিবি সদস্য নিহত হন। নারায়ণগঞ্জে সংঘটিত সেই ঘটনায় এই ফেরদাউস দুটি হত্যা মামলার আসামি হিসেবে চিহ্নিত। আর তাকেই সামনে রেখে রফিউর রাব্বি’র বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছেন শামীম ওসমান।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, রফিউর রাব্বীর বিরুদ্ধে ফেরদাউস মামলা দায়েরের দিনেই বিকেল বেলা তাকেসহ আজ্ঞাবহ অনেককে সঙ্গে নিয়ে মাসদাইর কবরস্থান মসজিদে সভা করে উত্তেজনাকর সাম্প্রদায়িক বক্তব্য দেন শামীম ওসমান যা বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে। এতেই প্রতীয়মান হয় যে শামীম ওসমানের নির্দেশ ও ইন্ধনেই রফিউর রাব্বি’র বিরুদ্ধে ফেরদাউসুর রহমান মামলা করেছেন।

এতে বলা হয়, ইতোপূর্বে ত্বকী হত্যার বিচার দাবির কারণে ত্বকী মঞ্চের বিভিন্ন জনের বিরুদ্ধে শামীম ওসমান ‘রাজাকারের ছেলে’ বলে মিথ্যা অভিযোগ এনেছেন, বিচার প্রার্থীদের জিভ কেটে নিতে চেয়েছেন, তাদের বাড়িঘর ভেঙে দিতে চেয়েছেন, তাদের বিভিন্ন ভাবে ভয় দেখিয়ে নিবৃত্ত করতে চেয়েছেন। আমরা মৌলবাদী শক্তিদের নিয়ে শামীম ওসমান এর এ হীন তৎপরতার তীব্র নিন্দা জানাই।

বিবৃতিতে স্বাক্ষর করেন নারায়ণগঞ্জ সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি জিয়াউল ইসলাম কাজল, নারায়ণগঞ্জ নাগরিক কমিটির সভাপতি এবি সিদ্দিক, সন্ত্রাস নির্মূল ত্বকী মঞ্চের সদস্য সচিব হালিম আজাদ, বাংলাদেশ উদীচী শিল্পী গোষ্ঠী নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি জাহিদুল হক দীপু, জাতীয় রবীন্দ্র সঙ্গীত সম্মেলন পরিষদ নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি অঞ্জন দাস, খেলাঘর নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি রথীন চক্রবর্তী, তেল-গ্যাস-খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির নারায়ণগঞ্জ জেলার সদস্য সচিব ডা. নজরুল ইসলাম, নারায়ণগঞ্জ কবিতা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক শরীফ উদ্দিন সবুজ, নারায়ণগঞ্জ ফটোগ্রাফিক সোসাইটির সদস্য সচিব সাব্বির আহমেদ, সুশাসনের জন্য নাগরিক সভাপতি আব্দুর রহমান, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি নারায়ণগঞ্জ জেলার সম্পাদক  হিমাংশু সাহা, যুব মৈত্রী নারায়ণগঞ্জ জেলার আহবায়ক আনোয়ার হোসেন, সমগীত নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি বিশ্বজিৎ সোহাগ, ক্রান্তি খেলাঘর আসরের সভাপতি নাঈম চৌধুরী, সত্যশ্রয়ী খেলাঘর সভাপতি রাজীব দাস, বাংলাদেশ কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) জেলার সভাপতি হাফিজুল ইসলাম, বাংলাদেশ সমাজতান্ত্রিক দল (বাসদ) নিখিল দাস, গণসংগতি আন্দোলনের জেলা কমিটির সমন্বয়ক তরিকুল সুজন, বাংলাদেশ ছত্র ইউনিয়ন জেলা শাখার সভাপতি সজিব শরীফ, সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট জেলা শাখার সভাপতি সুলতানা আক্তার, বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের জেলার সভাপতি মশিউর রহামান, ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক বিমল কান্তি দাস, জেলা গার্মেন্ট শ্রমিক সংহতির আহবায়ক অঞ্জন দাস, বাংলাদেশ যুব ইউনিয়নের জেলা শাখার সভাপতি বিজয় কর্মকার, গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়নের জেলা শাখার সভাপতি এম এ শাহীন প্রমুখ।

/টিএন/

Global Brand  ad on Bangla Tribune

লাইভ

টপ