Vision  ad on bangla Tribune

কালিয়াকৈরে গৃহবধূকে হত্যার অভিযোগে ভাসুরের স্ত্রী গ্রেফতার

গাজীপুর প্রতিনিধি২৩:২৬, জুলাই ১৭, ২০১৭

গাজীপুরগাজীপুরের কালিয়াকৈরে এক গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগে স্বামী, ভাসুর ও ভাসুরের স্ত্রীর বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। এ ঘটনায় সোমবার (১৭ জুলাই) দুপুরে গৃহবধূ সাধনা রানী মণ্ডলের (৩০) চাচা প্রেমানন্দ বাদী হয়ে কালিয়াকৈর থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলার পর গৃহবধূর ভাসুরের স্ত্রীকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে গাজীপুর জেল হাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ। তবে স্বামী ও ভাসুর পলাতক রয়েছে। নিহতের পরিবার ও মামলার বরাত দিয়ে কালিয়াকৈর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আব্দুল হাকিম এসব তথ্য জানান।
নিহতের পরিবার ও মামলার বরাত দিয়ে এসআই আব্দুল হাকিম জানান, নিহত গৃহবধূ ঢাকার আশুলিয়া থানার গোয়ালবাড়ী এলাকার হরিলাল চন্দ্র মণ্ডলের মেয়ে। সাধনা এবং বিমলের সংসারে সীমান্ত নামের আড়াই বছরের এক পুত্র সন্তান রয়েছে।

তিনি আরও জানান, বড় ভাবির সঙ্গে স্বামীর অস্বাভাবিক সম্পর্কের প্রতিবাদ করায়   গত রবিবার সন্ধ্যায় স্বামী, ভাসুর ও ভাবি এক জোট হয়ে সাধনাকে বেদম মারধর করে। এক পর্যায়ে তারা সাধনাকে গলা চেপে ধরে এবং বালিশ চাপা দিয়ে হত্যা করে। পরে তার লাশ নিজ ঘরের বারন্দায় ফেলে রেখে এলাকায় প্রচার করে সাধনার আত্মহত্যা করেছেন। খবর পেয়ে ওইদিন রাতেই পুলিশ ওই এলাকায় গিয়ে নিহতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়।

এ ঘটনায় নিহত সাধনার চাচা প্রেমানন্দ বাদী হয়ে গৃহবধূর স্বামী বিমল চন্দ্র (৩৫), ভাসুর শ্যামল চন্দ্র (৪০) ও ভাসুরের স্ত্রী সীমা রানীকে (৩০) আসামি করে কালিয়াকৈর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

এরপর অভিযান চালিয়ে সীমা রানীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

 

/এসএমএ/ টিএন/

লাইভ

টপ