শোক দিবসে তিন উপজেলার গরিবদের খাওয়াবেন একরাম চৌধুরী এমপি

Send
নোয়াখালী প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ২৩:৩৭, আগস্ট ১৩, ২০১৭ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:৪৪, আগস্ট ১৩, ২০১৭

নোয়াখালীতে শোক দিবসে গরিবদের খাওয়ানোর জন্য জবাই করা হবে এসব গরুশোক দিবসে নোয়াখালীতে বিশেষ ভোজের বিশাল আয়োজন করার প্রস্তুতি নিয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরী। এবছর তার নির্বাচনি এলাকা নোয়াখালী সদর ও সুবর্ণচর এবং তার জন্মস্থান কবিরহাট উপজেলায় তার ব্যবস্থাপনায় জবাই করা হবে ৮০টি গরু ও ৩০টি ছাগল। ইতোমধ্যে এ আয়োজনের সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৫ আগস্ট) সকাল থেকে তিন উপজেলার প্রত্যেকটি পৌরসভা ও ইউনিয়নে এ ভোজ শুরু হবে। এছাড়া অন্য ধর্মাবলম্বীদের উপাসনালয়ে নিরামিষ ভোজের আয়োজন করা হয়েছে।  

সরেজমিন দেখা গেছে, শোক দিবসের খাবার বিতরণ উপলক্ষে রাজশাহী থেকে এরই মধ্যে ৮০টি গরু ও ৩০টি ছাগল কিনে এনেছেন তিনি। রবিবার (১৩ আগস্ট)  দুপুর ১টায় জেলা শিল্পকলা একাডেমি মাঠে এসব গরু-ছাগল উপজেলা, ইউনিয়ন ও পৌরসভার আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দের হাতে তুলে দিয়েছেন এমপি একরামুল করিম চৌধুরী। এসময় দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘এবারে আমার এলাকার প্রতিটি মা-বোন ও ভাই যেন একবেলা পেট ভরে ভাত খেতে পারে সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। যেন কোনও লোক বাদ না পড়ে।’

এসময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সামছুদ্দিন জেহান, আবদুল মোমিন বিএসসি, মাওলা জিয়াউল হক লিটন, শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুল ওয়াদুদ পিন্টু, সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র শহিদ উল্যা খান সোহেল, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মাহমুদুর রহমান জাবেদ।

একরামুল করিম চৌধুরী বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুর শাহাদাতবার্ষিকী উপলক্ষে বিশেষ ভোজের আয়োজন করার জন্য সব এলাকার নেতাকর্মীদের গরু বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে।  তারা সাধারণ জনগণ ও গরিব-দুঃখী জনগণের খাওয়ার ব্যবস্থা করবেন। আমি নিজে পরিদর্শন করবো। প্রতিবারের মতো এবারও ৮০ টি গরু ও ৩০টি ছাগলের বিশেষ ভোজের ব্যবস্থা করেছি।’

এদিকে, হাতিয়া উপজেলায় স্থানীয় সংসদ সদস্য আয়েশা ফেরদৌস তার নিজ বাসভবনে ১৫টি গরু ও ১০টি ছাগল জবাই করে ভোজের আয়োজন করেছেন। একই উপজেলার বিশিষ্ট শিল্পপতি মাহমুদ আলী রাতুল ৩০টি গরু ও ২০টি ছাগল জবাই করে স্থানীয় ছাবেদা রাইস মিল সংলগ্ন মাঠে ভোজের আয়োজন করেছেন।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, ওইদিন জেলার বিভিন্ন মসজিদ ও মন্দিরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্য বিশেষ দোয়া ও প্রার্থনার আয়োজন করা হয়েছে।

/এনআই/টিএন/

লাইভ

টপ