বন্যায় কুড়িগ্রামে ৫৯১টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ

Send
কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ২৩:৪০, আগস্ট ১৩, ২০১৭ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:৫৬, আগস্ট ১৩, ২০১৭

ডুবে গেছে স্কুল, বন্ধ পাঠদানচলমান বন্যায় কুড়িগ্রামে ৪২৪টি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ১৬৭টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও কলেজ বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার (চলতি দায়িত্ব) স্বপন কুমার রায় চৌধুরী ও জেলা শিক্ষা অফিসার খন্দকার আলাউদ্দিন আল আজাদ বাংলা ট্রিবিউনকে এ খবর নিশ্চিত করেছেন।
জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা গেছে, জেলায় চারশ ৪১টি প্রাথমিক বিদ্যালয় বন্যার পানিতে প্লাবিত হওয়ায় চারশ ২৪টি বিদ্যালয়ে পাঠদান স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছে। বাকি ১৭টি স্কুলে বিকল্প পদ্ধতিতে পাঠদান চলছে। বন্ধ হওয়া স্কুলগুলোর মধ্যে দেড়শটি প্রাথমিক বিদ্যালয় বন্যার্তদের আশ্রয়কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে বলে জানা গেছে।
কুড়িগ্রামে বন্যার পানিতে ডুবে গেছে স্কুলএদিকে, জেলা শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা গেছে, বন্যায় একশ ৬৭টি নিম্ন মাধ্যমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়, মাদ্রাসা ও কলেজে পাঠদান স্থগিত রাখা হয়েছে। এর মধ্যে ৮৬টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আশ্রয়কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে।
এদিকে জেলার সবকটি নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে। স্থানীয় পানি উন্নয়ন বোর্ড জানিয়েছে, রবিবার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত গত ১২ ঘণ্টায় ধরলা নদীর পানি ২৬ সেন্টিমিটার বেড়ে ফেরিঘাট পয়েন্টে বিপদসীমার ১৩৪ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে এবং ব্রহ্মপুত্রের পানি ২৪ সেন্টিমিটার বেড়ে বিপদসীমার ৪৫ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। অন্যান্য নদ-নদীর পানিও বাড়ছে।

আরও পড়ুন-

‘এত পানি জীবনে দেহি নাই’

দিনাজপুরে বন্যায় ১৪ জনের মৃত্যু

বগুড়ার ৩০ হাজার মানুষ পানিবন্দি

দ্বিতীয় দফা বন্যায় নাকাল দেশবাসী

/টিআর/

লাইভ

টপ