বগুড়ায় স্ত্রীর হাতে স্বামী, স্বামীর হাতে স্ত্রী খুন

Send
বগুড়া প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৮:০৩, সেপ্টেম্বর ১৩, ২০১৭ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:০৯, সেপ্টেম্বর ১৩, ২০১৭

খুনবগুড়া শহরের চকফরিদ এলাকায় স্বামীর ছুরিকাঘাতে নববধূ ফাতেমা বেগম (১৯) ও দুপচাঁচিয়া উপজেলার কোঁচপুকুরিয়া গ্রামে প্রবাসী স্ত্রীর বঁটির কোপে স্বামী শহিদুল ইসলামের (৪৫) মৃত্যুর অভিযোগ পাওয়া গেছে। পুলিশ ফাতেমার স্বামী সুজন প্রামাণিক (২৮) ও শহিদুলের স্ত্রী খাদিজা খাতুনকে (৩৫) গ্রেফতার করেছে। পুলিশ লাশ দুইটি উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। উভয় ঘটনায় হত্যা মামলা করা হয়েছে। বগুড়া সদর থানার ওসি এমদাদ হোসেন ও দুপচাঁচিয়া থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাক এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

বগুড়া সদর থানার ওসি এমদাদ হোসেন ও এলাকাবাসী জানান, শহরের চকফরিদ এলাকার আবদুর রশিদের ছেলে রং মিস্ত্রি সুজন প্রামানিক ১৮ আগস্ট নাটোরের সিংড়ার তোজাম্মেল হোসেনের মেয়ে ফাতেমা বেগমকে বিয়ে করেন। মঙ্গলবার (১২ সেপ্টেম্বর) রাতে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে সুজন ক্ষিপ্ত হয়ে স্ত্রী ফাতেমার গলায় ছুরিকাঘাত করলে তিনি মারা যান। এ সময় সুজন নিজের গলায় ছুরি চালিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। প্রতিবেশীরা টের পেয়ে তাকে আটক করেন। বুধবার (১৩ সেপ্টেম্বর) সকালে খবর পেয়ে সদর থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার ও সুজনকে গ্রেফতার করে হাসপাতালে ভর্তি করেছে।

ওসি জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সুজন জানিয়েছে ফাতেমার অন্যত্র সম্পর্ক আছে। তাই সে সংসার করতে না চাওয়ায় তাকে হত্যা করেছে। সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আসলাম আলী জানান, বুধবার বিকালে নিহতের বাবা তোজাম্মেল হোসেন সদর থানায় জামাইসহ অজ্ঞাত কয়েকজনের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেছেন।

অন্যদিকে দুপচাঁচিয়া থানার ওসি আব্দুর রাজ্জাক ও গোবিন্দপুর ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য আবদুর রাজ্জাক জানান, কোঁচপুকুরিয়া গ্রামের মকবুল হোসেনের ছেলে শহিদুল ইসলামের স্ত্রী খাদিজা খাতুন সৌদি আরবে গৃহকর্মীর কাজ করেন। এক মাস আগে দেশে ফিরেছেন। তিনি বিদেশ থেকে টাকা পাঠালেও শহিদুল সে টাকার হিসাব রাখেননি। এ নিয়ে দাম্পত্য কলহ দেখা দেয়। মঙ্গলবার দুপুরে এ নিয়ে বাকবিতন্ডার এক পর্যায়ে খাদিজা বঁটি দিয়ে শহিদুলের বুকে আঘাত করে। স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে প্রথমে দুপচাঁচিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে তাকে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল  কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। রাত ৯টার দিকে তিনি মারা যান। পুলিশ রাতেই খাদিজা খাতুনকে গ্রেফতার করে। এ ব্যাপারে নিহতের মা সাইফুন বেগম দুপচাঁচিয়া থানায় হত্যা মামলা করেছেন।

ওসি জানান, দুইটি ঘটনায় গ্রেফতার সুজন প্রামানিক ও খাদিজা খাতুনকে আদালতের মাধ্যমে বগুড়া জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

/এনআই/

লাইভ

টপ