মিয়ানমারে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী বাহিনী মোতায়েন করা উচিত: এরশাদ

Send
কক্সবাজার প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৫:৪২, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৭ | সর্বশেষ আপডেট : ১৫:৫৮, সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৭

কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে এইচএম এরশাদ (ছবি: প্রতিনিধি)

মিয়ানমারে রোহিঙ্গা জনগণের ওপর নির্যাতন বন্ধ করা না হলে সেখানে জাতিসংঘের শান্তিরক্ষী বাহিনী মোতায়েন করা উচিত বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচএম এরশাদ। তিনি বলেছেন, 'মিয়ানমার রোহিঙ্গাদের ওপর যে নির্যাতন চালাচ্ছে তা গণহত্যার শামিল। অবিলম্বে নির্যাতন বন্ধ করতে হবে। তারা এ বর্বরতা বন্ধ না করলে জাতিসংঘের শান্তিরক্ষী বাহিনী মোতায়েন করা উচিত।’

বৃহস্পতিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) বিকাল ৩টার দিকে উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনকালে তিনি এসব কথা বলেন। বালুখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্পও পরিদর্শন করেন সাবেক এই রাষ্ট্রপতি।

এরশাদ এ সময় বলেন বলেছেন, ‘রোহিঙ্গাদের দেখলে আমার কান্না পায়। কারণ তাদের যে অবস্থা নিজ চোখে দেখলাম তাতে মনে হয়েছে আজ রোহিঙ্গারা খুবই অসহায়। তাদের খাদ্যের অভাব, থাকার জায়গা নেই। আসলে বলতে গেলে সত্যিই তারা অসহায়।’  

রোহিঙ্গাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের মানুষ আপনাদের পাশে আছে। যতদিন আপনারা ফিরে না যাবেন এই দেশের মানুষ আপনাদের সহায়তা করে যাবে।’

এসময় পার্টির মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার, প্রেসিডিয়াম সদস্য জিয়া উদ্দীন আহমেদ বাবলু, মেজর খালেদ, সাংসদ ইয়াহিয়া চৌধুরীসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন। আরও উপস্থিত ছিলেন জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি ও সাংসদ হাজী মো. ইলিয়াছ, সাধারণ সম্পাদক মুফিজুর রহমান, প্রভাবশালী সদস্য কবির আহামদ সওদাগর, সহ-সাধারণ সম্পাদক মোশারফ হোসেন দুলাল ও নাজিম উদ্দীন।

এর আগে দুপুর পৌনে ১২ টার দিকে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচএম এরশাদের নেতৃত্বে জাতীয় পার্টির ২৫ সদস্যের কেন্দ্রীয় টিম কক্সবাজারে আসেন। তারা প্রথমে বালুখালী ও পরে কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ত্রাণ বিতরণ করেন।

আরও পড়ুন- রোহিঙ্গাদের জন্য ৫৩ টন ত্রাণ পাঠালো ভারত

/এফএস/

লাইভ

টপ