১৯৭১ সালের মতো আরেকটি গণহত্যা চালাচ্ছে মিয়ানমার: ওবায়দুল কাদের

Send
কক্সবাজার প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ২০:০২, সেপ্টেম্বর ১৭, ২০১৭ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:০৬, সেপ্টেম্বর ১৭, ২০১৭

কক্সবাজারে আওয়ামী লীগের জরুরি সভা (ছবি: প্রতিনিধি)আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘১৯৭১ সালের মতো আরেকটি গণহত্যা চালাচ্ছে মিয়ানমার সরকার। প্রতিদিন অমানবিক নির্যাতন, ধর্ষণ, হত্যাকাণ্ডের মতো বর্বরতা চালাচ্ছে মিয়ানমার। এ কারণে প্রায় চার লাখ রোহিঙ্গা নিরাপদ আশ্রয়ের সন্ধানে বাংলাদেশে চলে এসেছে এবং এখনো অব্যাহত আছে। তাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার বোন শেখ রেহানা এই নির্যাতিত জনগোষ্ঠির পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন। কারণ আওয়ামী লীগ সরকার বিপন্ন মানুষের পক্ষে, মানবতার পক্ষে।’

রবিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় কক্সবাজারের একটি অভিজাত হোটেলে রোহিঙ্গা সংকট মোকাবিলায় আওয়ামী লীগ নেতাদের সঙ্গে জরুরি সভায় তিনি এসব কথা বলেন। প্রধান অতিথি হিসেবে তিনি সভায় উপস্থিত ছিলেন। কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সিরাজুল মোস্তফার সভাপতিত্বে এই জরুরি সভায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামিম, ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক সুজিদ রায় নন্দি ও স্থানীয় সাংসদ, জেলা আওয়ামী লীগের নেতারা।

সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘মিয়ানমার থেকে আসা বিপন্ন এই জনগোষ্ঠিকে ত্রাণ সহায়তা দিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে ইতোমধ্যেই সেনাবাহিনী কাজ করছে। তাদের সহায়তা দিয়ে যাবে নৌ-বাহিনীও। উখিয়া-টেকনাফে অবস্থানরত রোহিঙ্গাদের ত্রাণ, বাসস্থানসহ নানাভাবে সহায়তা দিচ্ছে সেনাবাহিনী। কিন্তু বিএনপি সেই সেনাবাহিনীকে বিতর্কিত করার চেষ্টা করছে।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘এই দেশ সম্প্রতি ঘূর্ণিঝড় ও বন্যায় আক্রান্ত। এরপরও আওয়ামী লীগ সরকার রোহিঙ্গাদের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে। এজন্য আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মন্ত্রী-এমপিদের পেছনে পেছনে না থেকে রোহিঙ্গাদের পাশে থাকার অনুরোধ করেছেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘রোহিঙ্গা ইস্যুকে পুঁজি করে একটি রাজনৈতিক দল ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের চেষ্টা করছে। তারা কোনও দিন সফল হবে না। রোহিঙ্গাদের নিয়ে ষড়যন্ত্র না করে মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে বিপন্ন মানুষের পাশে দাঁড়ান।’ বিএনপিকে উদ্দেশ্য করে আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, ‘রোহিঙ্গারা এখন ক্ষুধার্ত। এই লাখ লাখ মানুষের মাঝে কোনও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ছাড়া ত্রাণ নিয়ে গেলে আপনার জীবনও বিপন্ন হয়ে উঠতে পারে। তখন আপনার এই দায়-দায়িত্ব কে নেবে?’

আরও পড়ুন- রোহিঙ্গা নিধন কয়েক দশকের মধ্যে বিশ্বের নিষ্ঠুরতম ঘটনা: ওয়াশিংটন পোস্ট

/এফএস/

লাইভ

টপ