গুলিতে বাংলাদেশির মৃত্যুতে বিএসএফের দুঃখপ্রকাশ

Send
লালমনিরহাট প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৭:৪০, নভেম্বর ১৫, ২০১৭ | সর্বশেষ আপডেট : ১৭:৪১, নভেম্বর ১৫, ২০১৭

বুড়িমারী সীমান্তে বিজিবি ও বিএসএফের কর্মকর্তারা (ছবি: প্রতিনিধি)লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারী সীমান্তে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফের গুলিতে ফরিদ হোসেন শরীফ (২২) নামে এক বাংলাদেশির মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় বুধবার (১৫ নভেম্বর) ব্যাটালিয়ন পরিচালক পর্যায়ের পতাকা বৈঠকে বিজিবির কাছে বিএসএফ দুঃখপ্রকাশ করেছে।

বুধবার সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন বিজিবির রংপুর রিজিওন্যাল কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল একেএম সাইফুল ইসলাম সাইফ ও সেক্টর কমান্ডার কর্নেল মো. আবুল কালাম আজাদ।  

রংপুর-৬১ বিজিবি ব্যাটালিয়নের বুড়িমারী কোম্পানি সূত্র জানায়, মঙ্গলবার (১৪ নভেম্বর) দিনগত রাত প্রায় দেড়টার দিকে বুড়িমারী ইউনিয়নের আমবাড়ী সীমান্তে গরু পারাপার করছিলেন ফরিদ হোসেন শরীফসহ কয়েকজন ব্যবসায়ী। সীমান্ত অতিক্রম করে তারা ভারতে অনুপ্রবেশ করেন। এ সময় কুচবিহার-৬১ বিএসএফ ব্যাটালিয়নের বিএসবাড়ী ক্যাম্পের টহল দল গরু পাচারকারীদের লক্ষ্য করে কয়েক রাউন্ড গুলি ছোড়ে। গুলিবিদ্ধ হয়ে ঘটনাস্থলেই শরীফ নিহত হন। তার লাশ বিএসএফ নিয়ে গেছে। অন্যান্য পালিয়ে আসতে সক্ষম হন। বুড়িমারী ইউনিয়নের আমবাড়ী সীমান্তের ৮৪০ নম্বর মেইন পিলার এলাকায় এই ঘটনা ঘটেছে।

নিহত ফরিদ হোসেন শরীফ বুড়িমারী ইউনিয়নের উফারমারা (ঠাকুরপাড়া) এলাকার মো. শামসুল হকের ছেলে। তার পরিচয় রাতেই শনাক্ত করে বিজিবি-বিএসএফের যৌথ টহল দল।

এদিকে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে রংপুর-৬১ বিজিবি ব্যাটালিয়নের উপ-পরিচালক মেজর সৈয়দ মনিরুল ইসলাম বলেন, ‘বুধবার সকাল ১১টার দিকে বিজিবির রংপুর রিজিওন্যাল কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল একেএম সাইফুল ইসলাম, রংপুর সেক্টর কমান্ডার কর্নেল আবুল কালাম আজাদ ও ভারতীয় ভারপ্রাপ্ত সেক্টর কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জেসিংসং ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এরপর রংপুর-৬১ বিজিবি ব্যাটালিয়নের পরিচালক (অতিরিক্ত দায়িত্বে নিয়োজিত) লে. কর্নেল মুশফিকুর রহমান ও কোচবিহার-৬১ বিএসএফ ব্যাটালিয়নের পরিচালক লে. কর্নেল অজয় সুরিয়া রাজবংশীসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে পতাকা বৈঠকে মিলিত হন। ফরিদ হোসেন শরীফের লাশ ময়নাতদন্ত শেষে ফেরত দেবে বিএসএফ। এ ঘটনার জন্য বিজিবির কাছে দুঃখপ্রকাশ করেছে বিএসএফ। পরবর্তীতে এ ধরনের ঘটনা আর ঘটবে না বলে বিএসএফ প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।’

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে লে. কর্নেল মুশফিকুর রহমান বলেন, ‘নিহত ফরিদুল ইসলাম শরীফসহ ৫০/৬০ জনের গরু চোরাকারবারী দল আমবাড়ী সীমান্ত পথে অবৈধভাবে ভারতে প্রবেশ করে। এ সময় বিএসএফের টহল দল তাদের বাধা দিলে বিএসএফের ওপর হামলা চালায় চোরাকারবারীরা। পরে আত্মরক্ষার্থে গুলি ছুড়ে বিএসএফ। এতে মারা যান তিনি। এ ঘটনায় বিজিবি কড়াপ্রতিবাদ করলে দুঃখপ্রকাশ করে বিএসএফ।’

 

/এফএস/

লাইভ

টপ