রাঙামাটিতে এবার স্বামী ও সন্তানসহ আ.লীগ নেত্রীকে কুপিয়ে জখম

Send
রাঙামাটি প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৫:৩৭, ডিসেম্বর ০৭, ২০১৭ | সর্বশেষ আপডেট : ১৫:৪৬, ডিসেম্বর ০৭, ২০১৭

ঝর্ণা খীসারাঙামাটিতে ফের আওয়ামী লীগের এক নেতার ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। রাঙামাটি জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ঝর্ণা খীসাকে (৫৫) স্বামী ও সন্তানসহ কুপিয়ে জখম করেছে দুর্বৃত্তরা। তাদের আহতাবস্থায় রাঙামাটি সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বুধবার (৬ ডিসেম্বর) মধ্যরাতে এ ঘটনা ঘটে। রাঙামাটি কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সত্যজিৎ বড়ুয়া এ তথ্য জানিয়েছেন।

এর আগে গত ৫ ডিসেম্বর বিলাইছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি রাম চরন মারমা ওরফে রাসেল মারমাকে পিটিয়ে গুরুতর আহত অবস্থায় ফেলে রেখে যায় ১০-১২ জনের একটি দল। ওই দিনই রাত ৮টার দিকে জুরাছড়ি আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সহ-সভাপতি অরবিন্দু চাকমাকে গুলি করে হত্যা করা হয়। এই দুই ঘটনায় পুরো রাঙামাটিতে উত্তেজনা বিরাজ করছে। দুই হামলার প্রতিবাদে আজ বৃহস্পতিবার জেলায় হরতাল পালন করছে যুবলীগ।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, বুধবার গভীর রাতে কিছু যুবক ঘরে ঢুকে ঝর্ণা খীসা, তার স্বামী  জিতেন্দ্র লাল চাকমা (৬৫) ও ছেলে রমন কৃষ্ণ চাকমাকে (২৮)  কুপিয়ে জখম করে। পরে রাতেই তাদের রাঙামাটি সদর হাসপাতালে আনা হয়।

এদিকে, এ হামলার প্রতিবাদে সকাল থেকেই রাঙামাটি শহরে আওয়ামী লীগের দলীয় নেতারা বিক্ষোভ মিছিল করেন।

জেলা কৃষকলীগের সভাপতি জাহিদ আক্তার এ ঘটনায় পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতিকে দায়ী করে  বলেন, ‘ঝর্ণা চাকমা বুধবার বিকালে আওয়ামী লীগের বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখার কারণে তার ওপর এই হামলা হয়েছে।’

তবে জনসংহতি সমিতির উপ-তথ্য ও প্রচার সম্পাদক সজীব চাকমা তা অস্বীকার করেছেন। তিনি বলেন, ‘এই সব ঘটনার কোনোটির সঙ্গেই জনসংহতি সমিতি জড়িত না। ’

জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ৩৩নং সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য ফিরোজা বেগম চিনু বলেন, ‘গতরাতে ঝর্ণা খীসাকে হত্যার উদ্দেশ্যে অতর্কিতভাবে অবৈধ অস্ত্রধারীরা হালমা চালায়।  অবৈধ অস্ত্রের কাছে পাহাড়ের মানুষ জিম্মি।’ অপরাধীদের দ্রুত গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান তিনি।

আরও পড়ুন- 

রাঙামাটিতে আ. লীগ নেতাকে গুলি করে হত্যা
যুবলীগের ডাকে হরতাল চলছে রাঙামাটিতে

/এআর/এফএস/

লাইভ

টপ