সোনারগাঁওয়ে ইভটিজিংয়ে বাধা দেওয়ায় যুবককে পিটিয়ে হত্যা

Send
নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৯:৩৩, জানুয়ারি ১৪, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ১৯:৩৩, জানুয়ারি ১৪, ২০১৮

নারায়ণগঞ্জ

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে মামাতো-বোনকে ইভটিজিংয়ে বাধা দেওয়ায় এক যুবককে পিটিয়ে হত্যা করেছে বখাটেরা। নিহত যুবকের নাম সুলতান আহমেদ মিন্টু (৩৫)। রবিবার (১৪ জানুয়ারি) সকালে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মিন্টুর মৃত্যু হয়।

মিন্টুর মৃত্যুর সংবাদ পেয়ে রবিবার সকালে ছোট সাদিপুর এলাকায় ইভটিজিং এর দায়ে অভিযুক্ত যুবকের বাড়ি ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করেছে বিক্ষুব্ধ এলাকাবাসী। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সোনরাগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোরশেদ আলম।

এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মোগড়াপাড়া ইউনিয়নের ছোট সাদিপুর এলাকার ফাতেমা আক্তার মিতুকে বেশ কয়েকদিন ধরে একই উপজেলার বন্দরা গ্রামের রফিকের বখাটে ছেলে জাকির ইভটিজিং করে আসছিল। মিন্টু গত শুক্রবার (১২  জানুয়ারি) তার বোনকে উত্ত্যক্ত না করতে জাকিরকে নিষেধ করলে সে ক্ষিপ্ত হয়ে ক্রিকেট খেলার ব্যাট দিয়ে তাকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে।পরে স্থানীয়রা মিন্টুকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে যায়। পরে সেখান থেকে তাকে ঢাকা মেডিক্যাল হাসাপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে দুইদিন চিকিৎসাধীন থাকার পর রবিবার সকালে তিনি মারা যান। এদিকে মিন্টুর মৃত্যুর সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে স্থানীয় লোকজন ক্ষুব্ধ হয়ে  জাকির হোসেনের বাড়িঘর ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করে। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

নিহত সুলতান আহমেদ মিন্টু উপজেলার মোগড়াপাড়া ইউনিয়নের ছোট সাদিপুর এলাকার সামসুল হকের ছেলে।     

সোনারগাঁও থানার ওসি (অপারেশন) আব্দুল জব্বার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন,‘নিহত মিন্টু ও অভিযুক্তদের বাড়িতে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। যে কোনও ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। নিহতের ঘটনা তদন্ত করে খুব শিগগিরই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হবে।

আরও পড়ুন: রাজশাহীতে জামায়াত-শিবিরের দুই নেতা গ্রেফতার


/জেবি/

লাইভ

টপ