আচরণ ভালো না হলে শত উন্নয়ন ম্লান হয়ে যায়: ওবায়দুল কাদের

Send
নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম
প্রকাশিত : ২২:১৪, জানুয়ারি ১৪, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ২২:১৯, জানুয়ারি ১৪, ২০১৮

ওবায়দুল কাদের (ফাইল ছবি) মানুষের চোখের ভাষা, মনের ভাষা বুঝে রাজনীতি করতে হবে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেছেন, ‘আজকে সারা দেশে উন্নয়ন হচ্ছে, যা নজিরবিহীন। আমি এর সঙ্গে নজিরবিহীন ভালো আচরণ আশা করি। আমি সবাইকে বলবো, আচরণে শুদ্ধ হোন। আচরণে ভালো না হলে শত উন্নয়ন ম্লান হয়ে যায়। আচরণ ভালো করতে হবে। মানুষকে খুশি করতে হবে। মানুষের মন জয় করতে হবে। মানুষের চোখের ভাষা, মনের ভাষা বুঝে রাজনীতি করতে হবে।’

রবিবার (১৪ জানুয়ারি) বিকালে নগরীর লালদিঘি ময়দানে এ বি এম মহিউদ্দিন চৌধুরীর শোকসভায় তিনি এসব কথা বলেন। চট্টগ্রাম মহানগর, উত্তর ও দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ যৌথ উদ্যোগে এই শোকসভার আয়োজন করেছে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘মানুষের কাছে থাকা মানে মাটির কাছে থাকা। মানুষকে ভালোবাসলে মানুষ ভালোবাসা ফেরত দেবে। মহিউদ্দিন চৌধুরীর সাফল্যের ক্যামেস্ট্রি ছিল এটাই। মানুষকে ভালোবাসতে হবে, মানুষের জন্য রাজনীতি করতে হবে।’

আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘অপকর্ম থেকে বিরত থাকুন। অনেক হয়েছে, ঘরের মধ্যে ঘর তুলবেন না। মশারির মধ্যে মশারি খাটাবেন না। জনতা মানে না, ওই নেতার প্রয়োজন নেই। আর যেই নেতা পুলিশের কনস্টেবলের চাকরির ভাগাভাগিতে টাকার বিনিময়ে অংশ নেন। গরিব মানুষের কাছ থেকে টাকা আদায় করে আওয়ামী লীগে ওই নেতার প্রয়োজন নেই। সামান্য স্কুলের প্রহরীর চাকরির জন্য, সুইপারের চাকরির জন্য যেই নেতাকে টাকা দিতে হয় আওয়ামী লীগে ওই নেতার প্রয়োজন নেই।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘নেতাদের বলবো, নেতারাই নেতা বানায়। তাদের অনুরোধ করবো, কমিটি করতে গিয়ে পকেট কমিটি করবেন না।’

তিনি বলেন, ‘অনেক দুঃসময়ের নেতাকর্মী এখানে বসে আছেন। আমি তিন কমিটিকে (উত্তর, দক্ষিণ ও মহানগর কমিটি) বলবো, কমিটিতে জায়গা থাকলে দুঃসময়ের নেতাকর্মীদের সুযোগ দিন। অনেকে এখানে আছেন,  দঃসময়ে থাকবেন। যখন অন্ধকার আর দুর্দিন আসবে তখন সাইবেরিয়ার অতিথি পাখিরা আর থাকবে না। এই শীতের সময় অতিথি পাখিরা আসে, মৌসুম চলে গেলে তারাও চলে যায়। যখন ক্ষমতা থাকবে না, ক্ষমতার দাপট থাকবে না। তখন পাঁচ হাজার ভোল্টের বাতি জ্বালিয়েও তাদের খুঁজে পাওয়া যাবে না।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের মধ্যে ঐক্য চান জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আজ সকালে নেত্রীকে যখন বলেছি আমরা চট্টগ্রামে মহিউদ্দিন ভাইয়ের স্মরণসভায় এসেছি, তখন নেত্রী আমাকে বলেছেন- চট্টগ্রামে গিয়ে শুধু একটা কথা বলবে, মহিউদ্দিন চৌধুরীর অবর্তমানে আমি চট্টগ্রামের নেতাকর্মীদের মধ্যে ঐক্য চাই।’

তিনি নেতাকর্মীদের উদ্দেশে আরও বলেন, ‘আওয়ামী লীগ যদি ঐক্যবদ্ধ থাকে তাহলে কোনও শক্তি চট্টগ্রামে আওয়ামী লীগের বিজয় ঠেকাতে পারবে না। আপনারা ঐক্যবদ্ধ হোন। চট্টগ্রামকে আবারও সংগ্রাম-আন্দোলন, মুক্তিযুদ্ধ আর গণতন্ত্রের দুর্ভেদ্য ঘাঁটিতে পরিণত করুন।’

সেতুমন্ত্রী বলেন, ‘দেশে চক্রান্ত চলছে। ষড়যন্ত্র চলছে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রার বিরুদ্ধে আবারও ষড়যন্ত্রের গন্ধ পাচ্ছি। বাতসে চক্রান্তের আভাস পাচ্ছি। এই সংকটে আবারও ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। সাম্প্রদায়িকতার বিষবৃক্ষ মূলোৎপাটন করে আওয়ামী লীগের বিজয় নিশ্চিত করতে হবে। নৌকাকে জয়যুক্ত করতে হবে।’

মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় কমিটির প্রেসিডিয়াম সদস্য এবং গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, যুগ্মসাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম ও মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, উপ-প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, উপ-দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোসলেম উদ্দিন, উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নুরুল আলম চৌধুরী, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন, সংসদ সদস্য আফসারুল আমিন, এ বি এম ফজলে করিম প্রমুখ। সঞ্চালনা করেন দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান।

 

 

/এএইচ/

লাইভ

টপ
x