খালেদা জিয়া ও নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবিতে মৌলভীবাজারে বিএনপি নেতা অনশনে

Send
মৌলভীবাজার প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ০৩:১০, ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ০৩:৩১, ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০১৮

কুলাউড়ায় আমরণ অনশন করছেন বিএনপি নেতা অ্যাডভোকেট আবেদ রাজা।জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় সাজা পেয়ে কারাগারে বন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে আটক দলীয় নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবিতে কুলাউড়ায় আমরণ অনশন শুরু করেছেন মৌলভীবাজার জেলা বিএনপির সহসভাপতি অ্যাডভোকেট আবেদ রাজা। সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) কুলাউড়া পৌরসভার স্বাধীনতা সৌধে দুপুর ২টায় তিনি এই অনশন শুরু করেছেন। এদিকে, একই দিনে বিএনপি ও এর অঙ্গসংগঠনের পাঁচ নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ।
সোমবার দুপুরে উপজেলার বিভিন্ন স্থান থেকে ওই পাঁচ জনকে পুলিশ আটক করে। আটক পাঁচ জন হলেন— কুলাউড়া সদর ইউনিয়নের মৃত বাতির মিয়ার ছেলে আবু সুফিয়ান (৩২), হাসানপুর গ্রামের আব্দুল মন্নাফের ছেলে সাইফুর রহমান (২৮), হাজিপুর ইউনিয়নের ফরজান উল্ল্যার ছেলে মাওদুদ আহমদ (৩২), বিহালা গ্রামের মহরম আলীর ছেলে শামীম (৩৩) ও টিলাগাঁও ইউনিয়নের চকসালন গ্রামের গোবিন্দ চন্দের ছেলে গৌরাঙ্গ দে (২২)।
এর আগে, বিএনপির নেতাকর্মীদের আটক ও খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে স্বাধীনতা সৌধে দুপুর ২টা থেকে আমরণ অনশন শুরু করেন অ্যাডভোকেট আবেদ রাজা।
আবেদ রাজা বলেন, ‘গণতান্ত্রিক মতপ্রকাশে পুলিশ বাধা দিচ্ছে। কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে কুলাউড়ার উছলাপাড়ায় আমরা কয়েকজন নেতাকর্মীসহ মানববন্ধনের চেষ্টা করেছিলাম। কিন্তু পুলিশ নেতাকর্মীদের ওপর হামলা চালায়। সেখান থেকে পাঁচ-ছয় জনকে আটক করে পুলিশ। পুলিশের এমন ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণে গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে শান্তিপূর্ণ রাজনৈতিক কর্মসূচি পালন করা যাচ্ছে না। এর অবসান ঘটতে হবে।’
পুলিশের ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণের প্রতিবাদে এবং বেগম খালেদা জিয়া ও দলের নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবিতে আমরণ অনশন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন আবেদ রাজা।
কুলাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শামীম মুসা বলেন, ‘বিএনপির সহসভাপতি অ্যাড. আবেদ রাজা অনশন করছেন। কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা যেন না ঘটে, সেজন্য সেখানে পুলিশ সতর্ক অবস্থায় আছে।’
আরও পড়ুন-
নীলফামারীতে সদর আধুনিক হাসপাতাল নিয়ে মুখোমুখি সিভিল সার্জন
চন্দ্র সোনারথাল হাওরের তিন পিআইসি সভাপতি আটক, মুচলেকা দিয়ে মুক্তি

/টিআর/

লাইভ

টপ