খুলনায় ১৫ কাউন্সিলর প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল

Send
খুলনা প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ২৩:০৫, এপ্রিল ১৫, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:০৭, এপ্রিল ১৫, ২০১৮

খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনখুলনা সিটি করপোরেশনের (কেসিসি) নির্বাচনের মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাইয়ের প্রথম দিনে ১৫ জন কাউন্সিলর প্রার্থীর মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে। একই সঙ্গে তিন জন কাউন্সিলর প্রার্থীর মনোনয়নপত্র নিয়ে সিদ্ধান্ত স্থগিত রয়েছে।

রবিবার (১৫ এপ্রিল) বিকালে শেষ হওয়া প্রথম দিনের যাচাই-বাছাই শেষে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে রিটার্নিং অফিসার ও আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. ইউনুচ আলী এ ঘোষণা দেন। তিনি জানান, প্রথম দিনে ৫ মেয়র প্রার্থী, সংরক্ষিত ১০টি ওয়ার্ড এবং সাধারণ ১ থেকে ৮ নম্বর ওয়ার্ড ও ১০ নম্বর ওয়ার্ডের প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র যাচাই করা সম্পন্ন হয়েছে।

সোমবার (১৬ এপ্রিল) বাছাইয়ের শেষ দিনে সাধারণ ৯ নম্বর ওয়ার্ড ও ১১ থেকে ৩১ নম্বর ওয়ার্ডের প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই করা হবে।

নির্বাচন কর্মকর্তা মো. ইউনুচ আলী  জানান, বাতিল হওয়া প্রার্থীদের মধ্যে সাধারণ ১নম্বর ওয়ার্ডে শাহাজান সিরাজের মনোনয়নপত্রে নোটারি পাবলিকের স্বাক্ষর না থাকা ও আবুল কালাম ঋণখেলাপী হওয়া, ২নম্বর ওয়ার্ডে রাজা খানের মনোনয়নপত্র অসম্পূর্ণ হওয়া, ৪নম্বর ওয়ার্ডে আবু আসালাত মোড়লের মনোনয়নপত্রে প্রার্থীর স্বাক্ষর না থাকা, ৫নম্বর ওয়ার্ডে মো. মুকুল শেখের আয়কর সনদ সমস্যা, এস এম হুমায়ুন কবির ঋণখেলাপী হওয়া, সংরক্ষিত ৬নম্বর ওয়ার্ডে শামীমা পারভীনের মনোনয়নপত্র অসম্পূর্ণ হওয়া, ৭নম্বর ওয়ার্ডে মনোয়ারা সুলতানা কাকলীর আয়কর সমস্যা, ৮ নম্বর ওয়ার্ডে রমা রানী চক্রবর্তী এ ওয়ার্ডের ভোটার না না হওয়া, ইসমত আরা বেগমের আয়কর সমস্যা, ৯নম্বর ওয়ার্ডে রিনা রহমানের অসম্পূর্ণ মনোনয়নপত্র, লিভানা পারভীনের স্বাক্ষর না থাকা, শাহানুর বেগমের আয়কর সমস্যা, ১০নম্বর ওয়ার্ডে মোসাম্মাৎ হোসনে আরার আয়কর সমস্যা ও বিলকিস আরা বুলির আয়কর সমস্যার কারণে মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে। এছাড়া ১০নম্বর সংরক্ষিত ওয়ার্ডের রোকেয়া ফারুকের ঋণখেলাপী জটিলতা ও শিক্ষাগত সনদ সমস্যা, সাধারণ ১নম্বর ওয়ার্ডে আব্দুর রাজ্জাকের ডিলারশীপ সম্পর্কিত জটিলতা এবং ১০নম্বর ওয়ার্ডে মো. জামালের শিক্ষাগত সনদে সমস্যার কারণে মনোনয়নপত্র স্থগিত রাখা হয়েছে। 

/এনআই/

লাইভ

টপ