নেত্রকোনায় বাবা-ছেলেকে হত্যার দায়ে পাঁচজনের যাবজ্জীবন

Send
নেত্রকোনা প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৫:৪৬, জুলাই ১২, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ১৭:১৭, জুলাই ১২, ২০১৮

যাবজ্জীবনশত্রুতার জের ধরে নেত্রকোনার আটপাড়ায় বাবা-ছেলেকে হত্যার দায়ে পাঁচজনকে যাবজ্জীন কারাদণ্ড ও প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড দিয়েছেন আদালত। বৃহস্পতিবার দুপুরে নেত্রকোনা জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক কে এম রাশেদুজ্জামান রাজা আসামিদের উপস্থিতিতে এ রায় ঘোষণা করেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন আটপাড়া উপজেলার রূপচন্দ্রপুর গ্রামের রোকন মিয়া, সাবাস খাঁ, জসিম উদ্দিন, সলতু খাঁ ও হারেস মিয়া।

জেলা জজ আদালতের পিপি সাইফুল আলম প্রদীপ জানান, ২০১১ সালের ২৭ মার্চ সকালে রূপচন্দ্রপুর গ্রামের তাজুল ইসলাম ও তার ছেলে সমুন মিয়া বিল থেকে মাছ ধরে বাড়ি ফেরার পথে আসামিরা তাদের পথরোধ করে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে। খবর পেয়ে স্বজনরা তাদের উদ্ধার করে প্রথমে নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে এবং পরে ময়মনসিংহ ও ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাদের মৃত্যু হয়।
এ ঘটনয় নিহত তাজুল ইসলামের ছেলে সোহাগ মিয়া বাদী হয়ে আটপাড়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পুলিশ তদন্ত শেষে ১২ জনকে আসামি করে ২০১২ সালের ১৫ সেপ্টম্বর আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। আদালত ১২ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য নেওয়া ও যুক্তিতর্ক শেষে আজ এ রায় দেন। এ সময় সাতজনের বিরুদ্ধে অপরাধ প্রমাণিত না হওয়ায় আদালত তাদের বেখসুর খালাস দেন।
এদিকে রায়ে রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি পিপি সাইফুল আলম সন্তুষ্ট হন। তবে এ রায়ে সন্তুষ্ট হতে পারেননি বলে জানান মামলার বাদী সোহাগ মিয়া।
মামলার বাদী সোহাগ মিয়া ও তার পরিবারের সদস্যরা বলেন, ‘আমরা এ মামলায় বিচার পাইনি। আমার বাবা-ভাই দুজনকে প্রকাশ্যে হত্যা করা হলো; এর ন্যায় বিচার পেলাম না। আমরা এ রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করব। আশা করি সেখানে ন্যায়বিচার পাবো।’

/জেবি/চেক-এমওএফ/

লাইভ

টপ