রাজশাহীতে দুই মেয়র প্রার্থীর পাল্টাপাল্টি অভিযোগ

Send
রাজশাহী প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ০২:০২, জুলাই ১৪, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ০২:০২, জুলাই ১৪, ২০১৮

 

রাজশাহী সিটি করপোরেশন নির্বাচনরাজশাহী সিটি করপোরেশন (রাসিক) নির্বাচনে জমে উঠেছে প্রচার-প্রচারণা। এর সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে সমর্থকদের মধ্যে উত্তেজনা ও প্রার্থীদের পাল্টা-পাল্টি অভিযোগ। বিশেষ করে প্রচার-প্রচারণা শুরু হওয়ার পর চার দিন (শুক্রবার পর্যন্ত) আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোটের মেয়র প্রার্থীর পক্ষ থেকে ১০টি ও ২০ দলীয় জোটের মেয়র প্রার্থীর পক্ষ থেকে ১২টি অভিযোগ করা হয়েছে রিটার্নিং অফিসারের কাছে।

সিটি করপোরেশন নির্বাচনের সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও রাজশাহী জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আতিয়ার রহমান বলেন, ‘শুক্রবার পর্যন্ত আমাদের কাছে ১৪টি অভিযোগপত্র দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থীর পক্ষে ১০টি এবং বিএনপির মেয়র প্রার্থীর পক্ষে দুটি। আর দুটি অভিযোগ দিয়েছেন কাউন্সিলর প্রার্থী। তবে ১০টি পত্রে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী ১০টি অভিযোগ করলেও বিএনপির মেয়র প্রার্থী দুটি পত্রে ১২টি অভিযোগ এনেছেন।’

আতিয়ার রহমান আরও বলেন, ‘গত ১১ জুলাই দেওয়া একটি পত্রে সাতটি অভিযোগ এনে বিএনপির মেয়র প্রার্থী মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের পক্ষে নগরের বিভিন্ন এলাকার পোস্টার ও ফেস্টুন ছিড়ে ফেলে নষ্ট করারসহ আচরণবিধিভঙ্গের অভিযোগ আনা হয়েছে। একই দিনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থীর পক্ষ থেকে অপপ্রচার, বস্তিবাসী ও সংখ্যালঘু পরিবারের সদস্যদের ভয়ভীতি দেখানো একটি অভিযোগ দেওয়া হয়। এছাড়াও ১২ জুলাই, নৌকার সমর্থককে হুমকি, নৌকার নারী কর্মীদের সঙ্গে অশ্লীল আচরণ, পোস্টার- ফেস্টুন ছিড়ে ফেলে নষ্ট করার ৪টি অভিযোগ দেওয়া হয়।’

এছাড়াও শুক্রবার আচরণবিধি লঙ্ঘনের পাঁচটি অভিযোগ করেছেন আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থীর পক্ষ থেকে। একই সঙ্গে বিএনপির মেয়র প্রার্থীর পক্ষ থেকেও আচারণবিধি লঙ্ঘনের পাঁচটি অভিযোগ করা হয়েছে।

আতিয়ার রহমান বলেন, ‘অভিযোগগুলো তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

রাজশাহী সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে ৫ জন, ৩০টি সাধারণ ওয়ার্ডে ১৬০ জন এবং ১০টি সংরক্ষিত মহিলা ওয়ার্ডে ৫২ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

আগামী ৩০ জুলাই ১৩৮টি ভোটকেন্দ্রে ভোটগ্রহণ করা হবে। ভোটার সংখ্যা তিন লাখ ১৮ হাজার ১৩৮ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার এক লাখ ৫৬ হাজার ৮৫ জন ও নারী ভোটার এক লাখ ৬২ হাজার ৫৩ জন।

/এআর/

লাইভ

টপ