করতোয়া নদী থেকে নারী মাদক ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার

Send
বগুড়া প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ২২:৪১, সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৮ | সর্বশেষ আপডেট : ২২:৪১, সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৮

লাশ উদ্ধারবগুড়া শহরতলির মাটিডালি এলাকায় করতোয়া নদী থেকে রিনা বেগম (৩৪) নামে পুলিশের তালিকাভুক্ত এক মাদক ব্যবসায়ীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। বুধবার (১২ সেপ্টেম্বর) দুপুরে বেইলি সেতুর নিচে থেকে লাশটি উদ্ধার করে সদর থানা পুলিশ। সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম বদিউজ্জামান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এদিকে, নিহতের স্বজনরা দাবি করেছেন মঙ্গলবার (১১ সেপ্টেম্বর) মধ্যরাতে পুলিশ পরিচয়ে সাদা পোশাকে ৪-৫ জন ব্যক্তি রিনা বেগমকে শহরের চকসুত্রাপুর বাদুড়তলার বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে যায়। এরপর তাকে নদীর কাদার মধ্যে মাথা ডুবিয়ে হত্যা করা হয়েছে। তবে সদর থানা ও ডিবি পুলিশ দাবি করেছে, তারা রিনাকে গ্রেফতার বা আটক করেনি।

ওসি এসএম বদিউজ্জামান জানান, রিনা বেগম শহরের চকসুত্রাপুর বাদুড়তলার মুক্তার হোসেনের স্ত্রী। তার বিরুদ্ধে থানায় মাদকসহ ১০টি মামলা রয়েছে। একটি মামলায় সে দুবছরের সাজাও ভোগ করেছে। তার মা এজেদা পাগলি এক নম্বর তালিকাভুক্ত মাদক ব্যবসায়ী।

ওসি জানান, বুধবার বেলা ১১টার দিকে জনগণ শহরতলির মাটিডালি এলাকায় বেইলি সেতুর নিচে করতোয়া নদীতে এক নারীর পঁচন ধরা লাশ ভাসতে দেখেন। দুপুরে নদী থেকে লাশটি উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়। পরে স্বজনরা রিনা বেগমের লাশ শনাক্ত করেন। বিকালে ময়নাতদন্ত শেষে লাশ তার পরিবারের সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

ওসি আরও জানান, নিহতের শরীরে কোনও আঘাতের চিহ্ন নেই। তাকে পুলিশ গ্রেফতার বা আটক করেনি। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলেই তার মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে।

নিহতের ভাই এবং ওই এলাকার ইয়াসিন আলীর ছেলে অটো চালক ইউসুফ আলী জানান, তার বোন রিনা গত তিন বছর মাদক ব্যবসা করেনি। তার বিরুদ্ধে থানায় ২-৩টি মাদকের মিথ্যা মামলা রয়েছে। তিনি দাবি করেন, পকেটে মাদক দিয়ে পুলিশ তাকেও গ্রেফতার করেছিল। তিনি আরও জানান, মঙ্গলবার রাত পৌণে ১২টার দিকে সাদা পোশাকে ৪-৫ জন পুলিশ বাড়ি থেকে তার বোনকে তুলে নিয়ে যায়।

 

/আইএ/

লাইভ

টপ