কুমিল্লায় শিশুসহ ২৭ রোহিঙ্গা আটক

Send
কুমিল্লা প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৬:৪৪, জানুয়ারি ১১, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৭:২৬, জানুয়ারি ১১, ২০১৯

কুমিল্লা

ভারত থেকে পালিয়ে আসা ২৭ জন রোহিঙ্গা শরণার্থীকে কুমিল্লা থেকে আটক করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১০ জানুয়ারি) রাতে কুমিল্লা সেনানিবাস এলাকার কাকলি রেঁস্তোরার সামনে থেকে তাদের আটক করে পুলিশ। এ নিয়ে এক সপ্তাহের ব্যবধানে কুমিল্লার কোতোয়ালি ও ব্রাহ্মণপাড়া থেকে এ নিয়ে মোট ৯১ জন রোহিঙ্গা নাগরিককে আটক করা হয়েছে।

কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু ছালাম মিয়া জানান, বৃহস্পতিবার রাতে ঢাকায় যাওয়ার উদ্দেশে রওনা হওয়া ২৭ রোহিঙ্গা নাগরিককে আটক করা হয়। রোহিঙ্গা দলে পাঁচ জন পুরুষ, ছয় জন নারীসহ ১৬ জন শিশু রয়েছে। পরে তাদেরকে কক্সবাজার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পাঠানো হয়।

তিনি আরও জানান, আটক ২৭ জন রোহিঙ্গা জুম্মু-কাশ্মির থেকে আসাম হয়ে আগরতলা আসে। তারপর সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করে। পরে তারা ঢাকা যাওয়ার জন্য কুমিল্লা সেনানিবাস এলাকার কাকলি রেঁস্তোরার সামনে অবস্থান নেয়। এ সময় স্থানীয়দের মাধ্যমে জানতে পেরে ফাঁড়ির পুলিশ তাদের আটক করে।

ভারতে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের তাদের নিজ দেশ মিয়ানমারে পাঠানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এই উদ্যোগের অংশ হিসেবে সম্প্রতি সাত রোহিঙ্গাকে মিয়ানমারের কাছে হস্তান্তরও করা হয়। বিষয়টি সেখানে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের মধ্যে আতঙ্ক তৈরি করেছে। মিয়ানমারে ফিরে আবার নির্যাতনের মুখে পড়ার ভয়ে আতঙ্কিত রোহিঙ্গারা সীমান্ত পেরিয়ে বাংলাদেশে প্রবেশ করছে। উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ইনচার্জ মোহাম্মদ রেজাউল করিম জানান, গত এক সপ্তাহে ভারত থেকে পালিয়ে আসা ৭৪ জন রোহিঙ্গাকে ট্রানজিট পয়েন্টে রাখা হয়েছে। শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনারের কার্যালয় সূত্রের তথ্যানুযায়ী, গত ১০ দিনে ১১১টি রোহিঙ্গা পরিবারের ৪৬৮ জন সদস্য কক্সবাজারের উখিয়ার কুতুপালং রাবার বাগানের কাছের স্থাপিত ক্যাম্পে আশ্রয় নিয়েছেন। এরা সবাই ভারত থেকে বাংলাদেশে প্রবেশ করেছেন। নতুন আসা এসব সদস্য জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থার তত্ত্বাবধানে রয়েছেন।

/এমএ/টিটি/

লাইভ

টপ