কয়েলের আগুন ছড়িয়ে গেল ঘরে, পুড়ে মরলেন বৃদ্ধা

Send
পঞ্চগড় প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৮:১০, জানুয়ারি ১১, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:১১, জানুয়ারি ১১, ২০১৯

পঞ্চগড়

আমেনা বেগম (৭০) নামে একজন বৃদ্ধার ঘরে মশা তাড়ানোর জন্য সন্ধ্যায় কয়েল জ্বালিয়ে দেন স্বজনরা। কিন্তু গভীর রাতে সেই ঘরে আগুন জ্বলতে দেখে জেগে ওঠেন অন্য ঘরে থাকা পরিবারের সদস্যরা। এরপর দ্রুত ওই বৃদ্ধাকে উদ্ধার করা হয়। তবে ততক্ষণে পুড়ে গেছে তার শরীরের একাংশ। চিকিৎসার জন্য সদর হাসপাতালে নিলে সেখানেই মৃত্যু হয় বৃদ্ধার। পুলিশ, চিকিৎসক ও পরিবার সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

বৃহস্পতিবার (১০ জানুয়ারি) পঞ্চগড়ের পূর্ব ইসলামবাগ এলাকায় এসব ঘটনা ঘটে। নিহত বৃদ্ধা আমেনা বেগম ওই এলাকার মৃত মজাম্মেল হকের স্ত্রী।।

এ ব্যাপারে পঞ্চগড় থানার এসআই শাহিনুজ্জামান শাহিন বলেন, ‘শরীরের কম্বল বা চাদরে আগুন লেগে তার মৃত্যু হতে পারে।’

জানা গেছে, আমেনা ১০ বছর ধরে প্যারালাইজড হয়ে ছিলেন। বুধবার রাতে বাড়ির একজন সদস্য তার ঘরে কয়েল জ্বালিয়ে দিয়ে ঘুমাতে যান। গভীর রাতে হঠাৎ আমেনার ঘরে আগুন দেখতে পান অন্যরা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পঞ্চগড় ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের সদস্য এবং পরিবারের লোকজন অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় আমেনাকে উদ্ধার করে পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করে।  সকালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

আমেনার ভাই শরিফ উদ্দীন বলেন, ‘কয়েলের আগুন থেকে ছড়ানো অগ্নিকাণ্ডে দগ্ধ হয় আমেনা। এরপর তাকে উদ্ধার করে পঞ্চগড় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।’  

পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালের মেডিক্যাল অফিসার ডা. মো. সেলিম আল দ্বীন জানান, ওই বৃদ্ধার শরীর ৭৫ ভাগ অগ্নিদগ্ধ হয়। আমরা প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করি। কিন্তু পারিবারিকভাবে তাকে নিতে না পারায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

পঞ্চগড় ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্সের স্টেশন অফিসার নিরঞ্জন সরকার জানান, আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে উদ্ধার করি। তখন প্রত্যেকটি ঘরেই বিদ্যুতের বাতি জ্বলছিল।

 

 

/এএইচ/

লাইভ

টপ