সৈয়দপুরে স্কুলশিক্ষকের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ

Send
নীলফামারী প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ০০:০৪, জানুয়ারি ১৩, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ০০:০৯, জানুয়ারি ১৩, ২০১৯

ধর্ষণসৈয়দপুরে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ করেছেন তার মা মরিয়ম বেগম। উপজেলার বেলপুকুর ইউনিয়নের ডাঙ্গাপাড়া শিশু মঙ্গল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মো. জাহিদুল ইসলামের (৩৫) বিরুদ্ধে তিনি এ অভিযোগ করেন। অভিযুক্ত শিক্ষেকের বাড়ি একই ইউনিয়নের ডাঙ্গীবাড়ী গ্রামে। 

ওই ছাত্রীর মা বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘গত বুধবার (৯ জানুয়ারি) সকালে আমার মেয়ে অন্য দিনের মতো স্কুলে যায়। দুপুরের দিকে সে কাঁদতে কাঁদতে বাড়িতে এসে আমাকে জানায়, “জাহিদুল মাস্টার আমার সঙ্গে খারাপ কাজ করেছে।” অনেক বোঝানোর পরে মেয়ে আমাকে ঘটনা খুলে বলে।  ঘটনার দিন ৫ জন শিক্ষকের স্থলে প্রধান শিক্ষকসহ অন্য দুজন শিক্ষক ছুটিতে থাকায় দুপর দেড়টার দিকে স্কুল ছুটি দিয়ে দেয় দায়িত্বপ্রাপ্ত শিক্ষক জাহিদুল ইসলাম।’

তিনি আরও বলেন, এ সময় মাঠে খেলতে থাকা শিশুটিকে রুমে ডেকে নিয়ে দরজা বন্ধ করে ধর্ষণ করে সে।  আমি এ ঘটনা বহুবার ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মিজানুর রহমানকে জানালে তিনি মীমাংসা করার কথা বলে এড়িয়ে যান। এরপর এলাকার মেম্বার নুর নবীকে জানালে শনিবার (১২ জানুয়ারি) সকালে সালিশের কথা বলে টালবাহানা শুরু করেন।’ 

মরিয়ম বেগম বলেন, ‘বিচার না পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে অভিযোগ দিতে চাইলে আমাকে ভয়ভীতি দেখানো হয়। তিনি বলেন, ওইদিন আমি ছুটিতে ছিলাম।

কামারপুকুর ক্লাস্টারের উপজেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা রুহুল আমিন জানান, ঘটনার চার দিন পর শনিবার (১২ জানুয়ারি) পর দুপুর ১টার দিকে প্রধান শিক্ষক মিজানুর রহমান আমাকে বিষয়টি জানিয়েছেন। আমি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবগত করেছি।

উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো. শাহজাহান মণ্ডল বলেন, ‘ঘটনাটি কিছুক্ষণ আগে প্রধান শিক্ষকের কাছে শুনেছি। ছাত্রীটির পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ পেলে বিভাগীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

এ ব্যাপারে, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসএম গোলাম কিবরিয়া জানান, অভিযোগ পেলে ছাত্রীটিকে সকল প্রকার আইনি সহায়তা দেওয়া হবে এবং অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

/এমএএ/

লাইভ

টপ