সখীপুরে ছাত্রীকে আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ, গ্রেফতার ২

Send
টাঙ্গাইল প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৭:১৩, জানুয়ারি ১৪, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৭:৪৩, জানুয়ারি ১৪, ২০১৯

গ্রেফতারটাঙ্গাইলের সখীপুরে প্রায় এক মাস ধরে দশম শ্রেণির এক ছাত্রীকে আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় রবিবার (১৩ জানুয়ারি) রাতে ওই ছাত্রীর মা বাদী হয়ে অভিযুক্ত মজিবর (৪২) ও তার স্ত্রী আমেনা বেগমসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে সখীপুর থানায় মামলা দায়ের করেন। পরে ওই রাতেই অভিযুক্ত মজিবর ও তার স্ত্রী আমেনা বেগমকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার (১৪ জানুয়ারি) দুপুরে মজিবর রহমানকে পাঁচদিনের রিমান্ড চেয়ে টাঙ্গাইল আদালতে পাঠানো হয়েছে। এখনও ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ।

মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার কালিয়া ইউনিয়নের ধলীপাড়া গ্রামের ওই ছাত্রীকে মজিবর দীর্ঘদিন ধরে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল। মজিবরের পরিবার প্রভাবশালী হওয়ায় ওই মেয়েটির পরিবার কাউকে কিছু বলতে সাহস পায়নি। গত ২৪ ডিসেম্বর স্থানীয় বাজারে যাওয়ার সময় অভিযুক্ত মজিবর রহমান কৌশলে তাকে তুলে নিয়ে যায়। পরে তাকে আটকে রেখে নিয়মিত ধর্ষণ এবং নানাভাবে নির্যাতন চালায়। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর মা বাদী হয়ে রবিবার (১৩ জানুয়ারি) রাতে অভিযুক্ত মজিবর রহমান ও তার স্ত্রী আমেনা বেগমসহ চারজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

সখীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আমির হোসেন বলেন, ‘সোমবার দুপুরে অভিযুক্ত মজিবরকে ৫ দিনের রিমান্ড চেয়ে টাঙ্গাইল আদালতে পাঠানো হয়েছে। এছাড়াও মজিবরের স্ত্রীকেও আদালতে পাঠানো হয়েছে। ওই ছাত্রীকে উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।’

/জেবি/এমওএফ/

লাইভ

টপ