অনিয়মের অভিযোগ, হাবিপ্রবি'র ভর্তি কার্যক্রম বন্ধ রাখার দাবি ছাত্রলীগের

Send
দিনাজপুর প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ২০:৪২, ফেব্রুয়ারি ১২, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:৫৩, ফেব্রুয়ারি ১২, ২০১৯

হাবিপ্রবিদিনাজপুর হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (হাবিপ্রবি) অনার্স প্রথম বর্ষের ভর্তি কার্যক্রমে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। ভর্তির অপেক্ষমাণ তালিকার মেধাক্রম অনুযায়ী ভর্তি করা হয়নি বলে অভিযোগ করেছেন শিক্ষার্থীরা। তবে প্রশাসন জানিয়েছে, বিষয়ভিত্তিক পছন্দক্রম ফরম পূরণ না করায় ভর্তির সুযোগ থেকে বঞ্চিত হয়েছে শিক্ষার্থীরা। এই ঘটনার সুষ্ঠু ব্যবস্থা গ্রহণ না করা পর্যন্ত ভর্তি কার্যক্রম বন্ধ রাখার দাবি জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ।

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার বরাবর দাখিল করা অভিযোগ থেকে জানা যায়, ‘জি’ ইউনিটের অপেক্ষমাণ মেধাতালিকায় ১১তম শারমিন আকতার মিতু গত ১১ ফেব্রুয়ারি রিপোর্ট করেন। মঙ্গলবার দুপুরে এসে দেখতে পান তাকে বাদ দিয়ে পরের অপেক্ষমাণ তালিকায় ১২তম ভর্তির সুযোগ পেয়েছে। এখানে অনিয়ম করা হয়েছে অভিযোগ করে তিনি মেধাক্রম অনুযায়ী ভর্তির সুযোগ দেওয়ার অনুরোধ জানান।

একই অভিযোগ করেন ‘এফ’ ইউনিটের (শিফট-১)  ১০০তম অপেক্ষমাণ তালিকায় থাকা শিক্ষার্থী রিদওয়ানুল হক (ভর্তি পরীক্ষার রোল নং-৬০১৩৯৮)।  অপেক্ষমাণ মেধা তালিকায় থেকেও আরও অনেক শিক্ষার্থী ভর্তির সুযোগ থেকে বঞ্চিত হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। তবে অভিযোগকারী শিক্ষার্থীরা বিষয়ভিত্তিক পছন্দক্রম ফরম পূরণ না করার কথা স্বীকার করেছেন। 

এদিকে অপেক্ষমাণ মেধাক্রম অনুযায়ী ভর্তি না করার প্রতিবাদে অডিটরিয়াম-১ এ চলা ভর্তি কার্যক্রমে বাধা দেয় ছাত্রলীগ। মঙ্গলবার বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করেন। পরে তারা বিষয়টি নিয়ে রেজিস্ট্রার ও উপাচার্যের কার্যালয়ে যায়। ছাত্রলীগ নেতা আলমগীর হোসেন আকাশ জানান, ‘যেহেতু ভর্তি কার্যক্রমে একটি অভিযোগ উঠেছে তাই ভর্তি কার্যক্রম বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। যথাযথ সমাধানের মাধ্যমেই সুষ্ঠুভাবে ভর্তি কার্যক্রম হোক এটি ছাত্রলীগের কাম্য। তাই সমাধান না হওয়া পর্যন্ত ভর্তি কার্যক্রম শুরু না করার দাবি জানাই।’ 

ভর্তি পরীক্ষা কমিটির আহ্বায়ক প্রফেসর ড. মোস্তাফিজার রহমান জানান, ‘আট শিক্ষার্থী এমন অভিযোগ করেছে। কিন্তু তারা বিষয়ভিত্তিক পছন্দক্রম ফরম পূরণ করেনি। তাই তারা ভর্তির সুযোগ থেকে বঞ্চিত হয়েছে।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রফেসর ড. শফিউল আলম অভিযোগ পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ‘যারা পছন্দের বিষয় পূরণ করেনি তারা বাদ পড়েছে। বিগত দিনগুলোতে যেভাবে ভর্তি কার্যক্রম হয়েছে এবারও তাই হয়েছে। একটি গোষ্ঠী ভর্তি কার্যক্রম বাধাগ্রস্ত করার চেষ্টা করছে।’

 

/এফএস/

লাইভ

টপ