নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত সিলেটের ১২টি উপজেলা

Send
সিলেট প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৪:৩৮, মার্চ ১৭, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৫:৫৭, মার্চ ১৭, ২০১৯

সিলেট সদর উপজেলা থেকে বিভিন্ন ভোট কেন্দ্রে যাচ্ছে ভোটের সরঞ্জাম

পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দ্বিতীয় ধাপের ভোট অনুষ্ঠিত হবে সোমবার (১৮ মার্চ)। নির্বাচনকে সামনে রেখে রবিবার (১৭ মার্চ) সকাল থেকে সিলেটের ১২টি উপজেলায় নির্বাচনি সরঞ্জাম পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। উৎসবমুখর ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে নির্বাচন অনুষ্ঠানের সব প্রস্তুতি এরইমধ্যে সম্পন্ন করেছে সিলেট আঞ্চলিক ও জেলা নির্বাচন অফিস। সেই সঙ্গে ঢেলে সাজানো হয়েছে সিলেটের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে। রবিবার দুপুর থেকে মাঠে নামবেন আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। আগামীকাল সিলেটের ১৭৫ জন প্রার্থীর ভাগ্য নির্ভর করছে ১৭ লাখ ৯৩ হাজার ৭১০ ভোটারের ওপর।

সিলেটের যেসব উপজেলায় আগামীকাল ভোট অনুষ্ঠিত হবে সেগুলো হচ্ছে সিলেট সদর, বিশ্বনাথ, ফেঞ্চুগঞ্জ, বালাগঞ্জ, কোম্পানিগঞ্জ, কানাইঘাট,  গোয়াইনঘাট, জৈন্তাপুর, দক্ষিণ সুরমা, জকিগঞ্জ, গোলাপগঞ্জ ও বিয়ানীবাজার।

সিলেটের জেলা প্রশাসক এম. কাজী এমদাদুল ইসলাম জানান, নির্বাচনকে সামনে রেখে আইনশৃঙ্খলা ব্যবস্থাকে ঢেলে সাজানো হয়েছে। কেউ যাতে কোনও ধরণের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটাতে না পারে সেদিকে লক্ষ্য রেখে এ  ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এছাড়াও রবিবার সকাল থেকে সিলেটের ভোট কেন্দ্রগুলোতে পাঠানো হচ্ছে ভোটের সরঞ্জাম। শান্তিপূর্ণ ভোটে কেউ কোনও ধরণের বিশৃঙ্খলা করার চেষ্টা করলে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না বলে তিনি জানান।

সিলেট জেলা পুলিশ সুপার মনিরুজ্জামান জানান, জেলা পুলিশের আওতাধীন ১০টি উপজেলার ভোট কেন্দ্র পরিদর্শন শেষে নিরাপত্তা ছক কয়েকদিন আগেই চুড়ান্ত করা হয়েছে। সেই ছক অনুযায়ী মাঠে কাজ করবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। ভোট কেন্দ্রে কোনও প্রার্থীর লোকজন বিশৃঙ্খলা করার চেষ্টা করলে তাদের ক্ষতিটাই হবে বেশি। 

সিলেট মহানগর পুলিশের উপ-কমিশনার (গণমাধ্যম) জেদান আল মুসা জানান, মহানগর পুলিশের আওতাধীন সিলেট সদর ও দক্ষিণ সুরমা উপজেলায় শান্তিপূর্ণ ভোট দেওয়ার জন্য পুলিশের পক্ষ থেকে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। ভোটের আগের দিন থেকে শুরু করে ভোটের পরদিন পর্যন্ত পুলিশের পাশাপাশি মাঠে থাকবে বিচারিক টিম, বিজিবি, পুলিশ ও স্ট্রাইকিং ফোর্সের একাধিক টিম। এছাড়াও ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রগুলোতে থাকবে বাড়তি নজরদারি।

জানা যায়, সিলেট জেলার ১৩টি উপজেলা নিয়ে গঠিত। তবে ২০১৭ সালে ওসমানীনগর উপজেলায় ভোট হওয়ায় এবার সেখানে নির্বাচন হবে না। তাই ভোট হবে ১২ উপজেলায়। এই ১২ উপজেলায় এবার ভোটার সংখ্যা ১৭ লাখ ৯৩ হাজার ৭১০। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৯ লাখ ৮০ হাজার ৯০ জন ও নারী ভোটার ৮লাখ ৮৫ হাজার ৬২০জন। এছাড়াও ৯৭টি ইউনিয়ন ও ৪টি পৌরসভায় ভোট কেন্দ্র করা হয়েছে ৮১৫টি। ১২টি উপজেলার মধ্যে এবার সবচেয়ে বেশি ভোটার সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলায়। এ উপজেলায় ভোটার রয়েছেন ২ লাখ ২২ হাজার ৫শ’। সিলেটের ১২টি উপজেলায় এবারের নির্বাচনে ১৭৬ জন প্রার্থীর মধ্যে ১৭৫ জন প্রার্থী নির্বাচনে লড়ছেন। তবে কানাইঘাট উপজেলায় ভাইস  চেয়ারম্যান পদে কোনও প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকায় খাদিজা বেগমকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষণা করা হয় গত ২৮ ফেব্রুয়ারি।

 

/জেবি/

লাইভ

টপ