পাবনার ৮টি উপজেলায় নির্বাচন কাল, ১টিতে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত

Send
পাবনা প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৭:৩০, মার্চ ১৭, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৭:৩০, মার্চ ১৭, ২০১৯

পাবনা

 

উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপে পাবনার ৮টি উপজেলায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আগামীকাল সোমবার। তবে সদর উপজেলায় চেয়ারম্যানসহ দুই ভাইস চেয়ারম্যান বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছে। এ কারণে এই উপজেলায় নির্বাচন হবে না। অন্যান্য উপজেলায় প্রার্থীদের প্রচারণা শেষ হয়েছে। নির্বাচনের সব প্রস্তুতিও শেষ হয়েছে। ভোটের সব উপকরণ স্ব স্ব উপজেলা নির্বাচন অফিস থেকে বিতরণ করা হয়েছে।

সদর উপজেলা ছাড়া সুজানগরেও বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছে। তাই এ উপজেলায় দুটি ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, পাবনা সদর, সুজানগর, সাঁথিয়া, বেড়া, ঈশ্বরদী, আটঘরিয়া, চাটমোহর, ফরিদপুর, ভাঙ্গুড়া এ ৯টি উপজেলার মধ্যে ৭টি উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ২৬ জন প্রার্থী রয়েছে। এ ছাড়া ৮টি উপজেলায় ৪৯ জন পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান এবং ৩০ জন মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। পাবনার ৮টি উপজেলার মধ্যে শুধু আটঘরিয়া উপজেলায়ই ১১ জন পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান এবং ঈশ্বরদী উপজেলায় ৭ জন মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এরমধ্যে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন পাবনা সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোশারোফ হোসেন ও ভাইস চেয়ারম্যান পদে গোলাম আজম শাওয়াল বিশ্বাস এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে শামসুন নাহার রেখা। এছাড়া সুজানগর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পদে বিনাপ্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন শাহীনুজ্জামান শাহীন।

সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা আব্দুল লতিফ শেখ জানান, ৮টি উপজেলাকে দুই ভাগে ভাগ করা হয়েছে। ঈশ্বরদী, আটঘরিয়া, চাটমোহর, ভাঙ্গুড়া উপজেলায় তিনিই রিটার্নিং অফিসারের দায়িত্ব পালন করবেন। অন্যদিকে ফরিদপুর, বেড়া, সাঁথিয়া ও সুজানগর উপজেলায় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) শাফিউল ইসলাম রিটার্নিং অফিসারের দায়িত্ব পালন করছেন।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গৌতম কুমার বিশ্বাস বলেন,‘নির্বাচনকে ঘিরে আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী যে কোনও ধরণের নাশকতা ও আইন-শৃংখলা পরিপন্থী কর্মকাণ্ড প্রতিহত করতে প্রস্তুত।  শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন করতে ৩৮ জন ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ করা হয়েছে। আইন-শৃংখলা রক্ষায় ১৭ প্লাটুন অর্থাৎ ৩৯৫ জন বিজিবি সদস্য, পুলিশের ১ হাজার ৭৩২ জন সদস্য ও আনসার ভিডিপি’র ৬ হাজার ২৭২ জন সম্পৃক্ত থাকবেন। এছাড়াও র‌্যাবের টহল অব্যাহত থাকবে।

পাবনার ৯টি উপজেলায় ৬৬৭টি কেন্দ্রে মোট ভোটার ১৮ লাখ ৭৯ হাজার ৭৬৫ জন। তার মধ্যে ৮টি উপজেলার ৫২৩টি কেন্দ্রে ভোট দিবেন ১৪ লাখ ৪৩ হাজার ৮৬৩ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ৭ লাখ ২৯ হাজার ৪২৭ এবং মহিলা ভোটার ৭ লাখ ১৪ হাজার ৪৩৬ জন।

 

/জেবি/

লাইভ

টপ