রাজৈর উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গ্রেফতার

Send
মাদারীপুর প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ০৪:১৭, মার্চ ২৪, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ০৪:২২, মার্চ ২৪, ২০১৯

রাজৈরে উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আটকমাদারীপুরের রাজৈর উপজেলা নির্বাচন উপলক্ষে ভোটারদের মধ্যে অবৈধ পন্থায় টাকা বিলির অভিযোগে উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এমদাদুল হক পাট্টুকে আটক করেছে পুলিশ। তবে শনিবার (২৩ মার্চ) আটকের সময় তার কাছে কোনও টাকা ছিল না বলে জানিয়েছেন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহজাহান মিয়া। তাকে পুরাতন একটি সংঘর্ষ মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়েছে বলেও জানান তিনি। তবে উপজেলা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থীর পক্ষ ত্যাগ করে স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে কাজ করাতেই তাকে ষড়যন্ত্র করে ফাঁসানো হয়েছে বলে এলাকায় জোর গুঞ্জন উঠেছে।

স্থানীয় ও সংশ্লিস্ট একাধিক সূত্র জানায়, ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এমদাদুল হক পাট্টু এবারের নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী মহসিন মিয়ার পক্ষে কাজ করছিলেন। মহসিন মিয়া পাইকপাড়া ইউনিয়ন পরিষদে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করেছিলেন। তবে সে সময় উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোতালেব মিয়া তার বিপক্ষে অবস্থান নিয়ে বিদ্রোহী প্রার্থীকে সমর্থন দেন। বিদ্রোহী প্রার্থী জয়ীও হন। এবার উপজেলা নির্বাচনে মোতালেব মিয়ার প্রতিপক্ষ হিসেবে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মহসিন মিয়া নির্বাচন করছেন।

এদিকে উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এমদাদুল হক পাট্টু নির্বাচনের শুরু থেকেই রাজনৈতিকভাবে মোতালেব মিয়ার নির্বাচন না করে মহসিন মিয়ার নির্বাচন করে আসছিলেন। তিনি সম্পর্কে স্বতন্ত্র প্রার্থী মহসিন মিয়ার স্ত্রীর খালাতো ভাই। এছাড়া রাজৈর উপজেলা আওয়ামী লীগের একটি অংশও মহসিন মিয়াকে সমর্থন দিয়েছেন।

পুলিশ সূত্র জানায়, শনিবার বিকালে এমদাদুল হক নিজ ইউনিয়ন বদরপাশার শংকরদী পাড় এলাকায় মহসিন মিয়ার নির্বাচন নিয়ে পোলিং এজেন্টদের সঙ্গে যোগাযোগ ও অবৈধভাবে টাকা বিলি করছেন বলে পুলিশকে জানানো হয়। পরে রাজৈর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে।

তবে ওসি শাহজাহান মিয়া জানান, এমদাদুল হকের কাছে কোনও টাকা পাওয়া যায়নি। তবে তিনি ১০ মার্চ একটি সংঘর্ষের মামলার এজাহারভুক্ত আসামি। সেই মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

এদিকে ছাত্রলীগসহ আওয়ামী লীগের বিভিন্ন সহযোগী সংগঠন ও এলাকাবাসী এ ঘটনাকে রাজনৈতিক প্রতিহিংসা ও ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবেই দেখছেন। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভিন্ন জন পোস্ট দিয়েছেন ও পাল্টাপাল্টি মন্তব্যও করছেন। 

/টিটি/

লাইভ

টপ