দুই ছাত্রীকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে প্রধান শিক্ষক গ্রেফতার

Send
লালমনিরহাট প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১০:৩২, এপ্রিল ১৬, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:০২, এপ্রিল ১৬, ২০১৯

লালমনিরহাট

দুই ছাত্রীকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলার ভাদাই ইউনিয়নের বড়াবাড়ী এমএইচ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক লুৎফর রহমানকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সোমবার (১৫ এপ্রিল) বিকালে স্থানীয় বুড়িরবাজার এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। লুৎফর আদিতমারী উপজেলার ভাদাই ইউনিয়নের বড়াবাড়ী এলাকার বাসিন্দা।

মামলার বিবরণে জানা যায়, গত ৯ এপ্রিল বিদ্যালয়ের বিরতির সময় প্রধান শিক্ষক লুৎফর পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রীকে অফিস কক্ষে ডেকে নিয়ে যৌন নিপীড়ন করে। পরে বিষয়টি কাউকে না বলার জন্য ওই ছাত্রীকে হুমকি দেয়।

পরে ওই ছাত্রী বিষয়টি তার এক বান্ধবীকে বলে। ওই বান্ধবী জানায়, তাকেও প্রধান শিক্ষক যৌন নিপীড়ন করেছিল। তাকেও বিষয়টি না জানাতে ভয় দেখানো হয়।

বড়াবাড়ী এমএইচ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি শামসুল হক বলেন, ‘আমি বিষয়টি জানি না। আমাকে বা ব্যবস্থাপনা কমিটির কোনও সদস্যকে বিষয়টি জানানো হয়নি। সোমবার দুপুরে প্রধান শিক্ষক লুৎফর রহমানের মাধ্যমেই বিষয়টি জানতে পারি। পরে শুনেছি মামলা হয়েছে। ওই মামলায় প্রধান শিক্ষককে গ্রেফতার করা হয়েছে।’

তিনি দাবি করেন, ‘স্কুলের জমিজমা নিয়ে শত্রুতার জের ধরে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে এ ঘটনা ঘটানো হয়েছে।’
আদিতমারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আসাদুজ্জামান বলেন, ‘দুই ছাত্রীকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগ নিয়ে একজন অভিভাবক আমার কাছে এসেছিলেন। আমি আইনগত ব্যবস্থা নিতে পরামর্শ দিয়েছিলাম।’
লালমনিরহাট জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা (ডিপিও) মো. জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ‘আদিতমারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে বিষয়টি জানতে পারি। মঙ্গলবার অফিস চলাকালীন সময়ে প্রধান শিক্ষক লুৎফর রহমানের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’
আদিতমারী থানার ওসি (তদন্ত) সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘মামলার পর একমাত্র আসামি লুৎফর রহমানকে স্থানীয় বুড়িরবাজার এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বিষয়টি অধিকতর গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করা হচ্ছে।’

/এআর/এমওএফ/

লাইভ

টপ