শিশু হত্যার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেফতারের দাবিতে লাশ নিয়ে মিছিল

Send
কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ২০:৪৭, এপ্রিল ১৭, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:৪৭, এপ্রিল ১৭, ২০১৯

দুর্বৃত্তের হামলায় নিহত শিশুর লাশ নিয়ে এলাকাবাসীর মিছিল

কিশোরগঞ্জ শহরে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে মো. সাগর (১২)নামে এক শিশুকে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে শহরের রাকুয়াইল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে তাকে হত্যা করা হয়। এই ঘটনার প্রতিবাদে ও  জড়িতদের গ্রেফতারসহ দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে বুধবার দুপুরে ওই শিশুর লাশ নিয়ে শহরে মিছিল করেছে এলাকাবাসী।

হারুয়া এলাকা থেকে মিছিলটি  বের হয়ে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে গিয়ে শেষ হয়। এতে এলাকার কয়েক হাজার নারী-পুরুষ অংশ নেয়।

নিহত সাগর শহরের সওদাগরপাড়ার বকুল মিয়ার ছেলে। পুলিশ জানিয়েছে, সাগর হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ। তবে আটকদের নাম বলতে চায়নি পুলিশ।

কিশোরগঞ্জ মডেল থানার ওসি মো. আবুবকর সিদ্দিক জানিয়েছেন, কয়েকদিন আগে ঘটে যাওয়া একটি ইভটিজিংয়ের ঘটনাকে কেন্দ্র করে হারুয়া ও সওদাগরপাড়ার যুবকদের মধ্যে বিরোধ চলছিল। এর জের ধরে মঙ্গলবার দুপক্ষের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। রাতে হারুয়ার যুবকরা রাকুয়াইল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনে সাগরকে একা পেয়ে ছুরিকাঘাত করে। গুরুতর আহত সাগরকে কিশোরগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে রাত সাড়ে ১১টার দিকে সে মারা যায়। হাসপাতাল সূত্র জানিয়েছে, সাগরের শরীরে ছুরির দুটি আঘাত পাওয়া গেছে। এর মধ্যে একটি ছিল গুরুতর। অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের কারণে সাগরের মৃত্যু হয়েছে।

হারুয়া এলাকার লোকজন জানায়, সাগরের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে রাত ১২টার দিকে সওদাগরপাড়ার বিক্ষুব্ধ লোকজন দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে হারুয়া এলাকার বেশকিছু দোকানপাট ভাঙচুর করে।

ওসি জানান, এ অবস্থায় পুলিশ ১১ রাউন্ড ফাঁকা গুলি করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। তিনি বলেন, সাগর হত্যার বিষয়ে মামলার প্রস্তুতি চলছে।  মামলা হলে আসামিদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সাগরের লাশ ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের লোকজনের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

 

/জেবি/

লাইভ

টপ