সোনাহাট স্থলবন্দর দিয়ে প্রথমবারের মতো পণ্য রফতানি

Send
কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৩:৫৩, এপ্রিল ১৮, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৪:০৬, এপ্রিল ১৮, ২০১৯

সোনাহাট স্থলবন্দর
চালু হওয়ার পর প্রথমবারের মতো বাংলাদেশি পণ্য রফতানি হলো কুড়িগ্রামের ভুরুঙ্গামারী উপজেলার সোনাহাট স্থলবন্দর দিয়ে। বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) দুপুর সাড়ে ১২টায় বাংলাদেশি প্রাণ-আরএফএল প্লাস্টিক পণ্য রফতানির মাধ্যমে প্রথমবারের মতো এ স্থল বন্দর দিয়ে পণ্য রফতানি শুরু হলো। সোনাহাট স্থল বন্দরের ট্রাফিক ইনস্পেক্টর মো. কিবরিয়া জলিল এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে সোনাহাট স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা গেছে, সোনাহাট স্থল বন্দর চালু হওয়ার পর ভারত থেকে পাথর ও কয়লা আমদানি চলমান থাকলেও এতদিন বাংলাদেশি কোনও পণ্য রফতানি হয়নি। আজ বৃহস্পতিবার প্রথমবারের মতো বাংলাদেশি প্রাণ-আরএফএল কোম্পানির প্লাস্টিক ফার্নিচার আর্টিকেল পণ্য রফতানির মাধ্যমে পণ্য রফতানির স্থবিরতার অবসান হলো।

সূত্র জানায়, ভারতের আসামের কোকরাঝাড় জেলার এসএ এন্টারপ্রাইজ কোম্পানি আমদানিকারক হিসেবে বাংলাদেশি ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠান ডিউরাবল প্লাস্টিক লিমিটেড (প্রাণ-আরএফএল) এর কাছ থেকে প্লাস্টিক ফার্নিচার আর্টিকেল আমদানির আগ্রহ দেখায়। এরপরই সোনাহাট স্থলবন্দর দিয়ে প্রথমবারের মতো ১১৫৮ দশমিক ৪০ কেজি পণ্য রফতানি করা হয়েছে। বাংলাদেশি টাকায় এই  পণ্যের মূল্য এক লাখ ৮৭ হাজার টাকা।

প্রথমবারের মতো পণ্য রফতানি উপলক্ষে সোনাহাট স্থলবন্দরে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কাস্টমস অ্যান্ড ভ্যাট এক্সাইজ, রংপুর বিভাগীয় কমিশনার আহসানুল হক। এছাড়াও অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কাস্টমস অ্যান্ড ভ্যাট এক্সাইজ,কুড়িগ্রাম ও সোনাহাট স্থল বন্দর কর্তৃপক্ষের কর্মকর্তাসহ বন্দর সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীরা।

সোনাহাট স্থল বন্দরের ট্রাফিক ইনস্পেক্টর মো. কিবরিয়া জলিল জানান, ‘বন্দরটি চালু হওয়ার পর আজই  প্রথমবারের মতো বাংলাদেশি পণ্য রফতানি হচ্ছে। এখন থেকে ভারতীয় ব্যবসায়ীদের চাহিদা অনুযায়ী বাংলাদেশি বৈধ যেকোনও পণ্য ভারতে রফতানি করতে পারবেন এখানকার ব্যবসায়ীরা।’

 

/এফএস/

লাইভ

টপ