নড়াইলে দুই সন্তানের জননীকে শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ

Send
নড়াইল প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৮:২৫, এপ্রিল ১৮, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৮:২৫, এপ্রিল ১৮, ২০১৯

লাশ

নড়াইল শহরের বেনাডোব গ্রামে শম্পা বেগম নামে দুই সন্তানের জননীকে (২৬) বুধবার রাত ১০টায় শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। নিহত শম্পা ওই গ্রামের মুসাম শেখের স্ত্রী। বৃহস্পতিবার সকালে পুলিশ মৃতদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নড়াইল সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

নিহতের স্বজনরা জানায়,লোহাগড়া উপজেলার নলদী ইউনিয়নের ব্রহ্মণীনগর গ্রামের ফসিয়ার মোল্যার মেয়ে শম্পার সঙ্গে ৮ বছর আগে নড়াইল পৌরসভার বেনাডোব এলাকার আফসার শেখের ছেলে মুসাম শেখের বিয়ে হয়। তাদের দুটি কন্যা সন্তান রয়েছে। বড় মেয়ে ফাহিমা বয়স ৪ বছর এবং ছোট মেয়ে মাহিয়ার বয়স দেড় বছর।শম্পার স্বামী মুসাম শেখ ঘটনার পর থেকে পলাতক রয়েছে।

শম্পার ভাই মনির মোল্যা বলেন,‘বুধবার (১৭ এপ্রিল) রাত ১টার দিকে ফোন করে আমাদের জানানো হয় শম্পা মারা গেছে। সেখানে গিয়ে দেখি তার কান দিয়ে রক্ত বের হচ্ছে। এছাড়াও গলায় দাগ দেখে আমরা সন্দেহ  করছি তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে।’

অভিযুক্ত মুসামের চাচা মুক্তার শেখ বলেন,‘আমার ভাইয়ের ছেলে মুসাম রাতে বাড়িতে গিয়ে দেখতে পায় বসন্ত রোগে আক্রান্ত তার ছোট মেয়েকে ডাল দিয়ে তার স্ত্রী শম্পা ভাত খাওয়াচ্ছে। তখন সে রাগারাগি করে তার স্ত্রীকে মরে যেতে বলে। এ কারণে অভিমান করে শম্পা রাতেই বাড়ির পাশের লিচু গাছের সঙ্গে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করে।’

নড়াইল সদর থানার উপ-পরিদর্শক কাজী বাবুল হোসেন বলেন,‘ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন হাতে পাওয়ার পর আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তবে এ ব্যাপারে সদর থানায় একটি ইউডি মামলা হয়েছে।’

 

/জেবি/

লাইভ

টপ