আন্দোলন দমাতে শিক্ষক-কর্মকর্তাদের বেতন বন্ধ করলেন ববি ভিসি

Send
বরিশাল প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১০:২৭, এপ্রিল ১৯, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১০:৩১, এপ্রিল ১৯, ২০১৯

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়পদোন্নতির ক্ষেত্রে বৈষম্য, নিয়োগে দুর্নীতি ও খারাপ আচরণ বন্ধসহ আট দফা দাবিতে গত ১৫ এপ্রিল বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (ববি) উপাচার্যের বিরুদ্ধে আন্দোলনে নামেন বিশ্ববিদ্যালয়টির শিক্ষক ও কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। এই আন্দোলন দমাতে পরদিন ১৬ এপ্রিল শিক্ষাক ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা বন্ধে সোনালী ব্যাংক, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় শাখার ব্যবস্থাপককে ই-মেইল পাঠান উপাচার্য প্রফেসর ড. এসএম ইমামুল হক। ওই ই-মেইলে তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের দুটি হিসাব নম্বর থেকে কোনও ধরনের লেনদেন না করার নির্দেশ দেন। ই-মেইল বার্তা পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেন ব্যাংকের শাখা ব্যবস্থাপক দেবাশীষ চৌধুরী।

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন-ভাতাসহ সব উন্নয়ন কাজের অর্থ বরাদ্দ দেওয়া হয় বিশ্ববিদ্যালয়ের সোনালী ব্যাংক শাখা থেকে। ভিসি’র ই-মেইল বার্তার কারণে বেতন-ভাতার অর্থ তুলতে পারছেন না শিক্ষক ও কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।

এদিকে, শিক্ষার্থীদের ‘রাজাকারের বাচ্চা’ বলায় ভিসির পদত্যাগের দাবিতে গত ২৬ মার্চ থেকে আন্দোলন করে আসছেন বিশ্ববিদ্যালয়টির শিক্ষার্থীরা। বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) শিক্ষার্থীদের এই দাবির সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করেন বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক ও কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।

এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবু জাফর মিয়া বলেন, ‘শিক্ষক ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের আন্দোলন দমাতে উপাচার্য বেতন-ভাতা বন্ধ করে দিয়েছেন। এতে করে উপাচার্যের পদত্যাগ দাবির আন্দোলন আরও কঠোর হবে। তিনি যে কারণে বেতন-ভাতা বন্ধ করেছেন তার (ভিসি) সে উদ্দেশ্য কোনোভাবেই সফল হবে না। আমরা বিশ্ববিদ্যালয় পরিবার থেকে ভিসি’র পদত্যাগের যে আন্দোলন শুরু করেছি, তা বাস্তবায়ন না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে।’

ব্যাংক সূত্রে জানা যায়, গত ১৬ এপ্রিল উপাচার্য এসএম ইমামুল হক স্বাক্ষরিত এক নোটিশে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের দুটি একাউন্ট থেকে কোনও ধরনের অর্থ প্রদান না করার জন্য ব্যাংকের ব্যবস্থাপককে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। একাউন্ট নম্বরের একটি থেকে উন্নয়নের কাজের অর্থ বরাদ্দ দেওয়া হয় এবং অপরটি থেকে শিক্ষক ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন দেওয়া হয়। নোটিশে বলা হয়, আপনাকে (ব্যবস্থাপক) জানাচ্ছি যে, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের দুটি হিসাব নম্বর থেকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত যাবতীয় অর্থ প্রদান এবং ইতোপূর্বে প্রদত্ত সব চেকসমূহ স্থগিত রাখার জন্য নির্দেশ দিচ্ছি।

এ ব্যাপারে সোনালী ব্যাংক, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় শাখার ব্যবস্থাপক দেবাশীষ চৌধুরী জানান, ভিসি প্রফেসর ড. এসএম ইমামুল হক বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যাংক একাউন্ট দুটি স্থগিত রাখার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন। পাশাপাশি পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত যাবতীয় অর্থ প্রদান স্থগিত রাখার জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পরবর্তীতে ভিসি স্যারের নির্দেশনা মতো ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানান ব্যাংকের ব্যবস্থাপক।

এ ব্যাপারে কথা বলার জন্য ভিসি ড. এসএম ইমামুল হকের ব্যক্তিগত মোবাইল নম্বরে কল দেওয়া হলে, কলটি রিসিভ হয়নি।

 

 

 

/আইএ/

লাইভ

টপ