‘নিজেদের ক্ষমতায়নে নারীদের আইনপ্রণেতার ভূমিকা পালন করতে হবে’

Send
নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম
প্রকাশিত : ২৩:১৯, মে ১১, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ২৩:২৩, মে ১১, ২০১৯

বক্তব্য রাখছেন চেরি ব্লেয়ার (ছবি– প্রতিনিধি)

নিজেদের সমতা ও ক্ষমতায়ন নিশ্চিতে নারীদের আইনপ্রণেতা ও নীতি-নির্ধারকের ভূমিকা পালন করতে হবে মন্তব্য করেছেন এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইমেনের (এইউডব্লিউ) চ্যান্সেলর চেরি ব্লেয়ার। তিনি বলেন, ‘নারীদের সমতায়ন একটি কঠিন বিষয়। এটা কোনও ব্যক্তিগতভাবে অর্জনের বিষয় নয়; এটা অর্জন করার জন্য আইনপ্রণেতা ও নীতি-নির্ধারকের ভূমিকা পালন করতে হবে নারীদের।’

শনিবার (১০ মে) বিশ্ববিদ্যালয়টি সপ্তম সমাবর্তনে তিনি এসব কথা বলেন। নগরীর পাঁচ তারকা হোটেল রেডিসন ব্লু’তে বিশ্ববিদ্যালয়ের এই সমাবর্তন অনুষ্ঠিত হয়।

এবার সমাবর্তন অনুষ্ঠানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নৃত্যকলা ডিপার্টমেন্টের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান প্রফেসর রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যাকে এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইমেনের পক্ষ থেকে ‘ডক্টর অব আর্টস’ এবং আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্টের অবকাঠামো, মানব সম্পদ উন্নয়ন ও প্রযুক্তি বিষয়ক প্রধান উপদেষ্টা ও অর্থমন্ত্রী প্রফেসর ড. মুহাম্মদ হুমায়ন কাইয়ুমীকে ‘ডক্টর অব লজ’ ডিগ্রি দেওয়া হয়।

চেরি ব্লেয়ার বলেন, ‘প্রিয় শিক্ষার্থীরা, তোমাদের যথেষ্ট যোগ্যতা ও দক্ষতা রয়েছে এবং আজ তোমরা তোমাদের সেই সনদ লাভ করছো। সেবার মাধ্যমে যোগ্য কর্মবীর হিসেবে তোমাদের সফলতা অর্জন করতে হবে। পাশাপাশি এক একজন যার যার এলাকায় চেঞ্জমেকার হিসেবে নিজেদের নেতৃত্বকে বিকশিত করবে।’

এর আগে শনিবার (১০ মে) বেলা ২টায় ছাত্রীদের সমবেত কণ্ঠে গাওয়া বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের গান ‘আগুনের পরশমণি’ বেজে উঠার মাধ্যমে ৭ম সমাবর্তন কার্যক্রম শুরু হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ড. ডেভ ডোল্যান্ড। এরপর বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যান্সেলর চেরি ব্লেয়ার। তারপর বক্তব্য রাখেন প্রতিষ্ঠানটির ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. নির্মলা রাও।

অন্যের মধ্যে আরও বক্তব্য রাখেন– এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইমেন (এ.ইউ ডব্লিউ) বোর্ড অব ট্রাস্টিজের সদস্য বিজিএমইএ-এর নব-বির্বাচিত সভাপতি রুবানা হক, বোর্ড অব ট্রাস্টিজের সদস্য রোকেয়া আফজাল রহমান, ডিরেক্টর এডমিশন রেহেনা খান, এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইমেন স্টুডেন্ট গর্ভনমেন্টেরর প্রেসিডেন্ট মুনতাহা চৌধুরী।

এবারের সমাবর্তনে দর্শন, রাষ্ট্রবিজ্ঞান-অর্থনীতি, অর্থনীতি, এনভারমেন্টাল সায়েন্স, পাবলিক হেলথ বিষয়ে বাংলাদেশসহ এশিয়া ও মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশের ১০০ জন শিক্ষার্থীকে গ্র্যাজুয়েট সম্মাননা সার্টিফিকেট দেওয়া হয়। এর মধ্যে অসাধারণ একাডেমিক সাফল্যের জন্য  ৩ জন শিক্ষার্থী এন্ডি মাটসুই অ্যাওয়ার্ড পান। তারা হলেন– পলিটিক্স, ফিলোসফি ও ইকোনোমিকসের আবরেশমী নওয়ার, ইকোনোমিকসের ফিরোজা স্বপ্নীল ও ইকোনোমিকসের মেহরিন মোস্তফা। তারা তিনজনই বাংলাদেশি।

 

/এমএ/

লাইভ

টপ