প্রান্তিক চাষিদের কাছ থেকে ধান কিনতে হবে: খাদ্যমন্ত্রী

Send
বগুড়া প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ০৯:২৩, মে ১৬, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ০৯:৩১, মে ১৬, ২০১৯

বগুড়ায় খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদারখাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার এমপি বলেছেন, ‘প্রান্তিক চাষিদের কাছ থেকে ধান কিনতে হবে। মধ্যস্বত্ত্বভোগীরা যেন ফায়দা লুটতে না পারে সে দিকে নজর রাখতে হবে। প্রতিটি উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নেতৃত্বে সমন্বয় কমিটির মাধ্যমে ধান চাল সংগ্রহ অভিযান অব্যাহত থাকবে। ধান সংগ্রহের ক্ষেত্রে কোনও রকম অনিয়ম বরদাশত করা হবে না। সরকার কৃষকদের ধানের ন্যায্য মূল্য দিতে সংগ্রহ মূল্য ধার্য্য করেছে। চাষিদের শঙ্কিত হওয়ার কোনও কারণ নেই।’

বুধবার বগুড়া শহরের চকসুত্রাপুর এলাকায় সদর খাদ্য গুদামে জেলা খাদ্য বিভাগের আয়োজনে অভ্যন্তরীণ বোরো ধান ও চাল সংগ্রহ উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

বগুড়া জেলা প্রশাসক ফয়েজ আহাম্মদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন রাজশাহী বিভাগীয় আঞ্চলিক খাদ্য নিয়ন্ত্রক মো. মনিরুজ্জামান, পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভুঞা, জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ডা. মকবুল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক মজিবর রহমান মজনু। অনুষ্ঠানের সঞ্চালনা করেন জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক এসএম সাইফুল ইসলাম। এ সময়  খাদ্য বিভাগের সব কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা উপস্থিত ছিলেন। পরে মন্ত্রী ধান ও চাল সংগ্রহ অভিযানের উদ্বোধন করেন।

বগুড়া জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক এসএম সাইফুল ইসলাম জানান, ‘এবার চাল নেওয়া হবে ৩৬ টাকা কেজি, ধান ২৬ টোকা কেজি এবং আতপ চাল ৩৫ টাকা কেজি। জেলায় এ বছর চাল সংগ্রহ করা হবে ৭৮ হাজার ৩৫৪ মেট্রিক টন। ধান সংগ্রহ করা হবে ৫ হাজার ৫৮৬ মেট্রিক টন। আতপ চাল সংগ্রহ করা হবে ৭ হাজার ৪৬ মেট্রিক টন। আগামী ৩১ আগস্ট পর্যন্ত সংগ্রহ অভিযান চলবে। ৫০টি অটো মিলসহ মোট দুই হাজার ১৮১ মিল ৭৮ হাজার ৩৫৪ মেট্রিক টন সিদ্ধ চাল সরবরাহে চুক্তি করেছে। এছাড়া ৮৩ মিল ৭ হাজার ৪৬ মেট্রিক টন আতপ চালের চুক্তি করে।’

আরও পড়ুন- 


ধান কেনায় কোনও রাজনৈতিক প্রভাব বরদাশত করা হবে না: খাদ্যমন্ত্রী

 

/এফএস/

লাইভ

টপ