ফেনীর তিন বৌদ্ধ বিহারে নিরাপত্তা জোরদার

Send
ফেনী প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৫:২৬, মে ১৮, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৫:২৮, মে ১৮, ২০১৯

গৌতম বুদ্ধের ভাস্কর্যবুদ্ধ পূর্ণিমা উপলক্ষে ফেনীর সোনাগাজীর তিনটি বৌদ্ধ মন্দিরে নিরাপত্তা জোরদার করেছে উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশ। শনিবার (১৮ মে) বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের প্রধান ধর্মীয় উৎসব-বৌদ্ধ পূর্ণিমা উদযাপনকালে যে কোনও ধরনের অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে ফেনীর পুলিশ সুপার কাজী মনিরুজ্জামান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘বৌদ্ধ পূর্ণিমা উদযাপনকালে নিরাপত্তা নিয়ে শুক্রবার দুপুরে প্রতিটি মন্দিরের বৌদ্ধ নেতাদের সঙ্গে পুলিশ প্রশাসনের মতবিনিময় হয়। এ সময় উপজেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি জোতিষ চন্দ্র বড়ুয়া, সাধারণ সম্পাদক দুলাল চন্দ্র মজুমদারসহ বৌদ্ধ বিহার ও বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের নেতারা উপস্থিত ছিলেন। সভায় উপজেলার চরমজলিশপুর ইউনিয়নের চরগোপালগাঁও গ্রামের ত্রি-রত্ন বৌদ্ধ বিহার, বিষ্ণুপুর গ্রামের বিষ্ণুপুর বৌদ্ধ বিহার, বগাদানা ইউনিয়নের ইছাপুর গ্রামের ইছাপুর বৌদ্ধ বিহারে নিরাপত্তা জোরদারের বিষয়ে আলোচনা হয়। এসব মন্দির শুক্রবার থেকে পুলিশ পাহারার আওতায় আনা হয়। প্রতিটি মন্দিরের নিরাপত্তায় ১৫ জনেরও বেশি পুলিশ সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে।’

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সোহেল পারভেজ বলেন, ‘বৌদ্ধ পূর্ণিমা সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে উদযাপনের লক্ষ্যে প্রস্তুতি সম্পর্কে বৌদ্ধ নেতাদের কাছ থেকে মন্দিরগুলোর বিষয়ে খোঁজ খবর নেওয়া হয়েছে। মন্দিরগুলোর নিরাপত্তাসহ বিভিন্ন বিষয়ে তাদের সহযোগিতা করার জন্য, পুলিশের পাশাপাশি স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। পুলিশ তিনটি বৌদ্ধবিহার পরিদর্শন করেছে। তারা সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষা ও শান্তিশৃঙ্খলা বজায় রাখতে সর্বাত্মক চেষ্টা চলাচ্ছে।’

উপজেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি জোতিষ চন্দ্র বড়ুয়া বলেন, ‘আমরা শান্তিপ্রিয়, কারও কোনও ক্ষতি করবো না। আমাদের ধর্মে আছে- ‘জীব হত্যা মহাপাপ’। আমরা তাতে বিশ্বাস করি। উপজেলার দুইটি ইউনিয়নে তিনটি ধর্মীয় উপাসনালয়ে বৌদ্ধ পূর্ণিমা পালনের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। বুদ্ধ পূর্ণিমা পালন উপলক্ষে তিনটি মন্দিরে সমবেত প্রার্থনা পাঠ করাবেন বুদ্ধ মহাথবীর প্রিয়ানন্দ। শনিবার সকাল থেকে মন্দিরে মন্দিরে নানা আচার অনুষ্ঠান শুরু হয়েছে, যা সন্ধ্যা পর্যন্ত চলবে।

/আইএ/

লাইভ

টপ